DBC News
ভার্চুয়াল হয়ে যাচ্ছে নির্বাচনী প্রচারণা

ভার্চুয়াল হয়ে যাচ্ছে নির্বাচনী প্রচারণা

গণসংযোগ ও দলীয় কর্মসূচি পালন করতে মাঠে দৌঁড়ঝাপের পাশাপাশি মানুষের কাছাকাছি যেতে রাজনৈতিক দলগুলো ঝুঁকছে ফেইসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। আসছে জাতীয় নির্বাচনে ফেইসবুক, টুইটার প্রচারণার বড় প্লাটফর্ম হবে বলেও ধারণা সংশিষ্টদের। ভোটারদের কাছে পৌঁছাতে এরইমধ্যে রাজনৈতিক দলগুলো গঠন করেছে বিশেষ সেল।

বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে কর্মরত সাহেদ এবং ময়ূখ কোন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত নন। যান না কোন মিছিল মিটিং সমাবেশে। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কারণে তারা সব দলের কর্মকাণ্ডই খুব সহজেই জানতে পারেন।

তারা জানায়, কোন রাজনৈতিক দলের কি অবস্থান বা কে কোন বিষয়ে প্রচারনা চালাচ্ছে সে তথ্যগুলো আমরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকেই পেয়ে থাকি।
রাজনৈতিক দলগুলোর আন্দোলন বা যে কোন কর্মসূচীর প্রচারণা খুব সহজেই ফেসবুক বা ইন্টারনেটের মাধ্যমে তরুণ প্রজন্মের কাছে পৌছে যাচ্ছে।

বিটিআরসির তথ্য অনুযায়ী দেশে এখন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা সাড়ে আট কোটির উপরে। যাদের বেশিভাগই আবার নিয়মিত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যবহার করেন।

তাই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সহজেই বিপুল সংখ্যক মানুষের কাছে পৌঁছাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে গুরুত্ব দিচ্ছে রাজনৈতিক দলগুলো।

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, 'দেশের মানুষের কাছে সঠিক তথ্য পৌঁছাতে হলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও আমাদের প্রচারণা দরকার। সেই সাথে অপপ্রচার বা গুজব ছড়ানোর প্রতিকার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আর তাই দলগতভাবে ইতিমধ্যে আমাদের সহযোগী এবং অঙ্গ সংগঠন মিলে কাজ শুরু করেছি।'

বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি বলেন, 'যুবদল, ছাত্রদল এবং আমাদের তরুণদের সমন্বয়ে দলের এই কর্মকান্ড পরিচালনার জন্য আমাদের একটা গ্রুপ আছে। যারা বিভিন্ন ভাবে দলের প্রচারনার সাথে যুক্ত।'

এরই মধ্যে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা সক্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। নির্বাচন কেন্দ্রীক প্রচারণা যেমন ছড়িয়ে দিচ্ছেন তেমনি জানিয়ে দিচ্ছেন দলের কর্মসূচিও। মূল ধারার গণমাধ্যমে এসব খবর প্রচার না হলেও, প্রচারণা মিছিল মিটিংয়ের খবর প্রতিনিয়ত পৌঁছে যাচ্ছে বিভিন্নস্তরের মানুষের কাছে।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ সুমন আহমেদ সাবির জানান, 'সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারণা চালাতে কিন্তু তেমন কোন খরচ নেই। তাই কম খরচেই কোন দল কি করতে চাচ্ছে কি কর্মসূচি দিচ্ছে তা খুব সহজেই বিশাল জনগোষ্ঠির কাছে পৌঁছে যাচ্ছে। যা অন্য কোন ধরনের প্রচারণা থেকে সহজ এবং নাগালের মধ্যে।'

অনেকেই মনে করেন, মার্কিন নির্বাচনে ট্রাম্পের জয়ের পেছনে সবচেয়ে বড় নিয়ামক ছিল অনলাইন প্রচারণা। তবে প্রচারণার পাশপাশি অপপ্রচার বা মিথ্যা তথ্য দিয়ে বিভ্রান্ত করার নজিরও রয়েছে।

আরও পড়ুন

নোয়াখালী ৫ আসনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির দুই হেভিওয়েট প্রার্থী

আগামী সংসদ নির্বাচনে নোয়াখালী ৫ আসনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির দুই হেভিওয়েট প্রার্থীকে নিয়ে উজ্জীবিত তৃণমূল নেতারা। আসনটিতে লড়বেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পর...

‘কোন দলের নয় জনগণের কথায় চলে ইসি’

কোন ব্যাক্তি বা দল নয় নির্বাচন কমিশন জনগণের ইচ্ছা পূরণে কাজ করবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা। রবিবার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্ব...

মারা গেলেন মাইক্রোসফটের সহ প্রতিষ্ঠাতা

মাইক্রোসফটের সহ প্রতিষ্ঠাতা পল অ্যালেন মারা গেছেন। দুর্বল ইমিউন সিস্টেম জনিত ক্যান্সার নন-হজকিন্স লিম্ফোমাতে ভুগছিলেন ৬৫ বছর বয়সী অ্যালেন।এর আগে, ২০০৯ সালে চিকি...

তিন কোটি ফেইসবুক একাউন্ট হ্যাক

হ্যাকাররা বিশ্বজুড়ে প্রায় তিন কোটি ফেইসবুক ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট হ্যাক করেছিল বলে জানিয়েছে ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ। গেল সেপ্টেম্বরে হ্যাকিংয়ের শিকার পাঁচ কোটি অ্যাক...