DBC News
উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্সলিগে রিয়ালের হার; য়্যুভেন্তাসের জয়, বায়ার্নের ড্র

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্সলিগে রিয়ালের হার; য়্যুভেন্তাসের জয়, বায়ার্নের ড্র

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্সলিগে সিএসকেএ মস্কোর বিপক্ষে হেরে গেছে চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ। সিএসকেএ মস্কোর কাছে ১-০ গোলে হেরেছে লোপেতেগির শিষ্যরা। হোঁচট খেয়েছে জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখও। আয়াক্সের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র করেছে বুন্দেসলিগা চ্যাম্পিয়ন। তবে পথ হারায়নি ইতালির ক্লাব য়্যুভেন্তাস। পাওলো দিবালার হ্যাটট্রিকে ইয়ং বয়েজকে ৩-০ গোল হারিয়েছে ওরা।

সময়টা ভালো যাচ্ছেনা রিয়াল মাদ্রিদের। লা লিগার শনির দশা কাটেনি চ্যাম্পিয়ন্সলীগেও।  ইঞ্জুরির কারণে এদিন দলে ছিলেন না গ্যারেথ বেল, রামোস, ইস্কো, মার্সেলো। তাদের অভাবটা ভালো মতোই টের পেয়েছে লস ব্ল্যাকোরা।

ম্যাচের সময় মাত্র ৬৫ সেকেন্ড। রিয়ালকে স্তব্ধ করে ওদের জালে বল জড়ান ভ্লাসিচ। ওর গোলের সামনে অসহায় নাভাস, ভারান আর উত্তাল লুঝনিকি স্টেডিয়াম।

এরপর ম্যাচে ফেরার চেস্টা করে গেছে রিয়াল মাদ্রিদ। কয়েকটা ভালো সুযোগ আসলেও তা আর কাজে লাগাতে পারেনি ওরা। শেষ পর্যন্ত হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে লোপেতেগির শিষ্যদের। ২ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে জি গ্রুপের শীর্ষে উঠে গেছে সিএসকেএ। ২ ম্যাচে রিয়ালের পয়েন্ট ৩।

আলিয়াঞ্জ আরেনাতে বায়ার্ন মিউনিখের সামনে ছিলো সহজ প্রতিপক্ষ আয়াক্স। কিন্তু তাতে জয়ে ফেরা হয়নি ব্যাভারিয়ানদের। এগিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে বায়ার্নকে।

মাটস হুমেলসের গোলে ম্যাচের চার মিনিটেই এগিয়ে যায় বায়ার্ন। পাল্টা জবাব দিতে বেশি সময় নেয়নি আয়াক্সও। ২২ মিনিটে দলকে সমতায় ফেরান মাজরাউই। সেকেন্ড হাফে একক আধিপত্য দেখিয়েছে গেস্টরা। তবে স্কোর লাইনে আর পরিবর্তন আসেনি। দুই ম্যাচে একটি করে জয় ও ড্রয়ে দুই দলেরই  সমান পয়েন্ট ৪। তবে গোল ব্যবধানে এগিয়ে ই গ্রুপের শীর্ষে আছে আয়াক্স।

আরেক ম্যাচে ইয়ং বয়েজের বিপক্ষে সহজ জয় পেয়েছে ওল্ড লেডি ইয়ুভেন্তাস। প্রথম ম্যাচে লাল কার্ড দেখায় ছিলেন না ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। তবে পর্তুগিজ তারকার অনুপস্থিতি দলকে বুঝতেই দেননি দিবালা। দিবালার ওয়ান ম্যান শোতে ৩-০ গোলে জয় পেয়েছে আল্লেগ্রেনির দল।

ম্যাচের পাঁচ মিনিটেই দল্কে লিড এনে দেন আর্জেন্টাইন তারকা। ৩৩ মিনিটে দলের লিড দ্বিগুণ করেন। আর হ্যাটট্রিক পূরণ করেছেন ৬৯ মিনিটে। দুই ম্যাচে দুই জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে এইচ গ্রুপের শীর্ষে আছে ইউভেন্তাস।

এদিকে, বাজে সময় যেন পিছু ছাড়ছে না ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। ইপিএলের পর এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘরের মাঠে ভ্যালেন্সিয়ার সাথে গোলশুন্য ড্র করেছে হোসে মরিনিয়োর দল। তবে আরেক ম্যাচে হফেনহাইমের বিপক্ষে ২-১ গোলে জয় পেয়েছে নগর প্রতিদ্বন্দ্বী ম্যানচেস্টার সিটি। এবারের আসরে এটাই তাদের প্রথম জয়।   
সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এই নিয়ে টানা চার ম্যাচ জয়শূন্য রইলো ম্যানইউ।ওল্ড ট্রাফোর্ডে ইউনাইটেডের প্রথমার্ধের পারফরম্যান্স ছিল হতাশাজনক। বিপরীতে অধিকাংশ সময় তাদের রক্ষণে চাপ ধরে রাখে ভ্যালেন্সিয়া।

দ্বিতীয়ার্ধে তুলনামূলক ভালো খেলে ইউনাইটেড। আর শেষ দিকে মার্কাস রাশফোর্ডের শট ক্রসবারের কোনায় লাগলে পয়েন্ট হারানোর হতাশাতেই মাঠ ছাড়তে হয় ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে। দুই ম্যাচে একটি করে জয় ও ড্রয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ১ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে ভ্যালেন্সিয়া। 

অন্য ম্যাচে নড়েচড়ে বসার আগেই ম্যানসিটির জালে বল জড়ায় স্বাগতিক হফেনহাইম। ম্যাচের ৪৪ সেকেন্ডে কেরেম ডেমিরবের গোলে লিড নেয় ওরা। গোল শোধ করতে বেশি সময় নেয়নি পেপ গার্দিওলার শিষ্যরাও।

আট মিনিটে সিটিজেনদের ম্যাচে ফেরান আগুয়েরো। একের পর এক আক্রমণ করে যাওয়া সিটি এগিয়ে যায় ৮৭ মিনিটে। দুই ম্যাচে এক জয়ে ৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে ম্যানচেস্টার সিটি। ২ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে শাখতার। হফেনহাইমের পয়েন্ট ১।