DBC News
'সেন্ট মার্টিনকে নিজেদের দাবি করা তথ্য সরিয়ে নিলো মিয়ানমার'

'সেন্ট মার্টিনকে নিজেদের দাবি করা তথ্য সরিয়ে নিলো মিয়ানমার'

মানচিত্রে সেন্ট মার্টিন দ্বীপকে নিজেদের অংশ হিসেবে দেখানোর ব্যাপারে ভুল স্বীকার করেছে মিয়ানমার। তবে তা সংশোধনে দেশটি কাজ করছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ডা. দীপু মনি। রবিবার দুপুরে, জাতীয় সংসদে সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠক শেষে এ কথা জানান ডা. দীপু মনি।

বৈঠকে পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি, ডা. দীপু মনি জানান, বাংলাদেশে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ডেকে এ বিষয়ে জোর প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। এরপর তারা তাদের ওয়েবসাইট থেকে এটি সরিয়ে ফেলে।

এছাড়া, বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যে কোনও ধরণের নেতিবাচক অপপ্রচার মোকাবেলায় সার্বক্ষণিক তৎপর থাকতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশও করেছে সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।

প্রসঙ্গত; মিয়ানমার সরকারের জনসংখ্যাবিষয়ক বিভাগের ওয়েবসাইটে সম্প্রতি তাদের দেশের যে মানচিত্র প্রকাশ করেছে, তাতে সেন্টমার্টিনকে তাদের ভূখণ্ডের অংশ হিসেবে দেখানো হয়। ওই মানচিত্রে মিয়ানমারের মূল ভূখণ্ড এবং বঙ্গোপসাগরে বাংলাদেশের অন্তর্গত সেন্টমার্টিনকে একই রঙে চিহ্নিত করা হয়। অন্যদিকে, বাংলাদেশের ভূ-ভাগ চিহ্নিত করা হয় অন্য রঙে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন মহলে সমালোচনার ঝড় ওঠে। পরে, বাংলাদেশের পক্ষ থেকে বলা হয়, মিয়ানমার যদি এমন আপত্তিজনক কাজ চালিয়ে যেতে থাকে তবে বাংলাদেশ এর উপযুক্ত ব্যবস্থা নেবে।