DBC News
অন্য কোন দেশ এত দ্রুত উন্নয়ন করতে পারেনি; প্রধানমন্ত্রী

অন্য কোন দেশ এত দ্রুত উন্নয়ন করতে পারেনি; প্রধানমন্ত্রী

অন্য কোন দেশ বাংলাদেশের মতো এত দ্রুত উন্নয়ন করতে পারেনি বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বহস্পতিবার সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে দেশের ২০টি জেলায় বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ৩৩টি প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন, প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, 'জাতির পিতা একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন। আমরা তাঁর স্বপ্ন বাস্তবায়ন করছি। বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড করেছি।' তিনি বলেন, আমরা দিনবদলের ঘোষণা দিয়েছি। দিনবদলের যাত্রা শুরু করেছি। এখন বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দারিদ্রের হার ২১ ভাগে নামিয়ে এনেছি।'

প্রধানমন্ত্রী বলেন, অামরা সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বাড়িয়েছি। যোগাযোগ, শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসহ সব ক্ষেত্রে উন্নয়ন করেছি। প্রযুক্তির জ্ঞান বাড়ানোর জন্য ডিজিটাল সেন্টার করে দিচ্ছি। মানুষ তথ্য প্রযুক্তির সেবা পাচ্ছেন। দেশকে এগিয়ে নিতে আমরা ব্যাপকভাবে কাজ করে যাচ্ছি।'

প্রতিটি ক্ষেত্রে দেশের মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে সরকার কাজ করে যাচ্ছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'দেশকে দারিদ্র ও ক্ষুধামুক্ত করতে সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে এবং দেশের মানুষের জীবনযাত্রা সহজ করার জন্য উন্নয়নমূলক প্রকল্প নেয়া হয়েছে।'

সুষম উন্নয়নের মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবাসহ আধুনিক নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে সরকার কাজ করছে বলেও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ সময় ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে সারাদেশে ১০টি নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্রসহ ৬টি মাতৃসদন, ৭টি সেতুসহ ২০ জেলায় ৩৩টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মজীবনীমূলক গ্রন্থ ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’র স্প্যানিশ ভাষায় অনূদিত সংস্করণের মোড়ক উন্মোচন করেন বঙ্গবন্ধু কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। স্পেন দূতাবাসের উদ্যোগে গণভবনে এ মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

'অসমাপ্ত আত্মজীবনী' বইটি উপমহাদেশের রাজনীতির বিশাল তথ্যভান্ডার বলে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই বই থেকে বঙ্গবন্ধুর জীবনের অনেক তথ্য জানা যাবে। সেই সঙ্গে বইটি গবেষণার খোরাক হবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'যারা গবেষণা করতে চাইবেন তাদের জন্য এ বই মূল্যবান দলিল হিসেবে কাজ করবে। তিনি বলেন, 'বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাস এবং উপমহাদেশের অনেক মূল্যবান ইতিহাস জানা যাবে এই বই থেকে।'

এ সময় বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, 'জাতির জনক বাংলা ভাষার পর স্প্যানিশ ভাষাকে সবচেয়ে মিষ্টি ও শ্রুতিমধুর ভাষা বলতেন। তাই স্প্যানিশ ভাষায় ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ অনূদিত হওয়ায় আনন্দ প্রকাশ করেন শেখ হাসিনা।'

বইটির স্প্যানিশ সংস্করণের উদ্যোগ নেয়ায় স্পেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত স্পেনের রাষ্ট্রদূতকে ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী। সেই সঙ্গে তিনি আরও ধন্যবাদ জানান, স্প্যানিশ অনুবাদক বেঞ্জামিন ক্লার্ককেও।

আরও পড়ুন

ব্যারিস্টার মঈনুলকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান

সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে 'চরিত্রহীন' বলায় ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেনেকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন আরও ১৪ জন বিশিষ্ট নাগরিক। শুক...

১৭৭ রোহিঙ্গা পুনর্বাসিত, দাবি মিয়ানমারের

১৭৭ রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের যে দাবি করেছে মিয়ানমার, সে বিষয়ে বাংলাদেশকে কিছুই জানানো হয়নি। এমনটি জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। শুক্রবার টেলিফোনে...

'সাত দফা দাবির একটিও গ্রহণযোগ্য নয়'

'বিএনপি দুর্দশাগ্রস্থ দল। একে উদ্ধারের দায়িত্ব নিয়েছেন ডক্টর কামাল হোসেন'- শুক্রবার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এ কথা বলেন। এসময় তিনি আর...

'চমক নিয়ে আসছে জাতীয় পার্টি'

জোট-মহাজোটের ভাঙা-গড়ার মধ্যে নতুন চমক নিয়ে আসছে জাতীয় পার্টির নেতৃত্বাধীন জাতীয় সম্মিলিত জোটে। এমনটাই বললেন পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার। আগামীকালের মহাস...