DBC News
সৌদি সাংবাদিক নিখোঁজের ঘটনায় উদ্বিগ্ন ট্রাম্প

সৌদি সাংবাদিক নিখোঁজের ঘটনায় উদ্বিগ্ন ট্রাম্প

নিখোঁজ সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগির ব্যাপারে সৌদি আরবের কাছে জানতে চেয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বৃহস্পতিবার তিনি জানান, এ বিষয়ে তুরস্ক ও সৌদিআরবের সঙ্গে কাজ করবে যুক্তরাষ্ট্র। 

এ সময় নিখোঁজ সাংবাদিকের বিষয়ে আদ্যোপান্ত জনসমক্ষে প্রকাশের দাবি জানান তিনি। কনসুলেটের ভেতর থেকে সাংবাদিক গায়েবকে গুরুতর ঘটনা অ্যাখ্যা দিয়ে এ বিষয়ে রিয়াদের কাছে জবাবও চান ট্রাম্প।

সাংবাদিক নিখোঁজের ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র সৌদি রাজপরিবারকে দায়ী ভাবছে কিনা, বুধবার টেলিফোনে ফক্স নিউজ চ্যানেলের করা এমন প্রশ্নের জবাবেও মার্কিন প্রেসিডেন্টের কণ্ঠে ছিল উদ্বেগের সুর।

এর আগে ওভাল অফিসে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথোপকথনে রিপাবলিকান এ প্রেসিডেন্ট জামাল খাশোগির নিখোঁজের বিষয়টি নিয়ে সৌদি নেতৃত্বের সঙ্গে বেশ কয়েকবার কথা হয়েছে বলে জানান। 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন ‘আমরা সবকিছু জানতে চেয়েছি। কি ঘটছে তাও দেখতে চাই আমরা। যুক্তরাষ্ট্র ও হোয়াইট হাউসের জন্য এটা একটা কঠিন পরিস্থিতি, আমরা এর শেষ দেখতে চাই।‘

এদিকে, খাশোগির নিখোঁজের সঙ্গে সৌদি গোয়েন্দা সংস্থার ১৫ কর্মকর্তা জড়িত বলে দাবি করেছে তুরস্ক। সৌদি আরব থেকে ২ অক্টোবর তুরস্কে আসা ১৫ সদস্যের একটি দল তাকে হত্যা করে বলে সন্দেহ তুর্কি গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর। পাসপোর্টের ছবির ভিত্তিতে ওই ১৫ জনের পরিচয় প্রকাশ এবং একটি ভিডিও সম্প্রচার করেছে দেশটির গণমাধ্যম। 

নিজের বিয়ের কাগজপত্র আনতে গত ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে বাগদত্তা হেতিস সেনগিজকে নিয়ে যান তিনি। কনস্যুলেটে প্রবেশের পর থেকে নিখোঁজ রয়েছেন মার্কিন প্রবাসী ও সৌদি সরকারের কঠোর সমালোচক সাংবাদিক জামাল খাশোগির। তুরস্কের দাবি খাশোগিকে কনস্যুলেটের ভেতরেই হত্যা করা হয়েছে। তবে এ ঘটনার দায় অস্বীকার করেছে সৌদি আরব।

কনসুলেটে প্রবেশের পর থেকে তার আর কোনো খোঁজ নেই। তুরস্ক আরও বলছে খাশোগিকে সম্ভবত কনসুলেটের ভেতরেই হত্যা করা হয়েছে।

রিয়াদ এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছে, প্রবেশের অল্প সময় পরই কনসুলেট ভবন ছেড়ে গেছেন, বছরখানেক ধরে যুক্তরাষ্ট্রে স্বেচ্ছা নির্বাসনে থাকা খাশোগি।

অপরদিকে, কনসুলেটের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা তুর্কি পুলিশ কর্মকর্তাদের নিরাপত্তা ক্যামেরায়; সৌদি এ সাংবাদিককে কনসুলেট থেকে পায়ে হেঁটে বেরিয়ে যেতে দেখা যায়নি। খাসোগি যে কনসুলেট ছেড়ে বেরিয়ে গেছেন তার ভিডিও ফুটেজ হাজির করতে বলেছে তুরস্ক; নাহলে সাংবাদিককে গুম ও হত্যার দায়ে সৌদি আরবকে কঠিন পরিস্থিতরি মুখোমুখি হতে হবে বলেও সতর্ক করেছে তারা।  

প্রসঙ্গত, সৌদি ক্রাউন প্রিন্সের কট্টর সমালোচক ৫৯ বছর বয়সী খাশোগিরের টুইটারে ১৬ লাখ অনুসারী রয়েছে। সৌদি এ নাগরিক সংবাদপত্র আল ওয়াতান ও স্বল্পকাল চালু থাকা একটি খবরের চ্যানেলেরও সাবেক সম্পাদক ছিলেন।

দীর্ঘদিন ধরে তাকে সৌদি রাজপরিবারের ঘনিষ্ঠ হিসেবেই বিবেচনা করা হতো। খাশোগি জ্যেষ্ঠ অনেক সৌদি কর্মকর্তার উপদেষ্টা হিসেবেও কাজ করেছেন।