DBC News
'গ্রেনেড হামলার দায় বিএনপির হলে, বিডিআর হত্যার দায় সরকারের'

'গ্রেনেড হামলার দায় বিএনপির হলে, বিডিআর হত্যার দায় সরকারের'

২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনার দায় তৎকালীন ক্ষমতাসীন বিএনপির হলে, বিডিআর হত্যার দায়ভার বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের বলে মন্তব্য করেছেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শুক্রবার সকালে, রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি'র কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন তিনি।

২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়কে ঘিরে দল থেকে তারেক রহমানের পদত্যাগের কোনও প্রশ্নই আসে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি। মির্জা ফখরুল বলেন, 'নিম্ন আদালতের দেয়া রায়কে যখন আমরা রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ও বিএনপিকে দুর্বল করার রায় বলছি, তখন সে রায়ের ভিত্তিতে আমাদের নেতা তারেক রহমানের পদত্যাগের কোন প্রশ্নই আসে না। সরকার তারেক রহমান সম্পর্কে মনগড়া কিছু তথ্য প্রকাশ করে তার সম্পর্কে বিরূপ ধারণা দেয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে।'

বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, '২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার দায় যদি বিএনপির হয় তাহলে পিলখানা হত্যাকাণ্ড, হলি আর্টিজান এবং জঙ্গি হামলায় নিহত বিদেশি কূটনীতিক, ব্যবসায়ী, এনজিও কর্মকর্তা, বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক, ইমাম-মোয়াজ্জিন, যাজক, পুরোহিত, ব্লগারসহ অসংখ্য সাধারণ মানুষের হত্যাকাণ্ডের দায়ও ক্ষমতাসীন দলের ওপর বর্তায়।'

গ্রেনেড হামলার রায়ে আদালতের পর্যবেক্ষণে বিস্ময় প্রকাশ করে মির্জা ফখরুল বলেন, 'রাষ্ট্রযন্ত্রের সহায়তায় হামলা বলে ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার রায়ের যে পর্যবেক্ষণ দেয়া হয়েছে, তা ক্ষমতাসীন দলের রাজনৈতিক বক্তব্যের প্রতিচ্ছায়া।' কোনও বিশেষ দলের রাজনৈতিক বক্তব্যের সঙ্গে আদালতের পর্যবেক্ষণ মিলে যাওয়া কোনও স্বাভাবিক ঘটনা নয়, বলেও মন্তব্য করেন তিনি।  

মির্জা ফখরুল প্রশ্ন তোলেন, হুজি নেতা মুফতি হান্নান নির্যাতনের মুখে যে জবানবন্দি দিয়েছিলেন, তা প্রকাশ্য আদালতে লিখিতভাবে প্রত্যাহার করে নেয়ার পর, তার সেই জবানবন্দির ভিত্তিতে তারেক রহমান এবং অন্যান্য বিএনপি নেতাকে অভিযুক্ত করে শাস্তি দেয়াটা কতটা আইনসঙ্গত? এটা উচ্চ আদালত বিবেচনা করবে বলে আশা করে বিএনপি।'

সংবাদ সম্মেলনে গণমাধ্যমকেও দোষারোপ করে ফখরুল বলেন, 'মিডিয়ার একাংশ বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সম্পর্কে মনগড়া ও বানোয়াট তথ্য প্রকাশ করে, জনমনে তার সর্ম্পকে বিরূপ ধারণা দেয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে।'

২১শে আগষ্টের হামলা পর তৎকালীন সরকারের দায়িত্বশীল আচরণ তুলে ধরে ফখরুল আরও বলেন, ‘ওই নৃশংস ঘটনার সুবিচার নিশ্চিত করার জন্য সরকারই মামলা করেছিল। নিরপেক্ষ তদন্তের জন্য এফবিআই ও ইন্টারপোলকে তদন্তের দায়িত্ব দিয়েছে। এছাড়া বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে এবং সর্বোপরি এ মামলার মূল আসামি মুফতি হান্নানকে গ্রেপ্তার করেছে।’