DBC News
যৌন হয়রানির অভিযোগে ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর পদত্যাগ

যৌন হয়রানির অভিযোগে ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর পদত্যাগ

যৌন হয়রানির অভিযোগের জেরে পদত্যাগ করলেন ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এম জে আকবর। তবে যৌন হয়রানির অভিযোগ অস্বীকার করে আকবর বলেন, সবই সাজানো ঘটনা ও গভীর উদ্বেগের বিষয়। তবে যারা এ ধরনের অভিযোগ এনেছেন, তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতেই তিনি পদত্যাগ করেন বলে দাবি করেছেন। 

গত ৮ই অক্টোবর ভারতের দুই নারী সাংবাদিক তার বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন। এরপর কংগ্রেস নেতারা তার পদত্যাগের দাবি জানায়। এম জে আকবর এক সময় দ্য টেলিগ্রাফ ও এশিয়ান এজের উচ্চ পর্যায়ের দায়িত্ব পালন করেছেন।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘#মি টু’ আন্দোলনে যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠায় ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এম জে আকবর পদত্যাগ করেছেন। এ অভিযোগ তোলায় এরই মধ্যে একজনের বিরুদ্ধে মানহানির মামলাও করেন এম জে আকবর। 

প্রতিবেদনে বলা হয়, ৬৭ বছর বয়সী এম জে আকবর এক বিবৃতিতে বলেছেন, তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ তিনি ব্যক্তিগতভাবে আদালতের মাধ্যমে মিথ্যা প্রমাণ করতে চান বলেই তিনি পদত্যাগ করেছেন। এছাড়া তার এ সিদ্ধান্ত সঠিক বলেও মনে করেন তিনি। তবে এর আগের দিন তিনি ঘোষণা দিয়েছিলেন, মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দেয়ার প্রশ্নই ওঠে না।      

গত সোমবার নারী সাংবাদিক প্রিয়া রামানির বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেন তিনি। মামলার এজাহারে প্রিয়া রামানির বিরুদ্ধে অভিযোগে বলা হয়, প্রিয়া তার সুনাম নষ্ট করার জন্য ভেবে চিন্তে ইচ্ছাকৃতভাবে মানহানিকর সম্পূর্ণ মিথ্যা এই অপপ্রচার চালিয়েছেন।  

গত ৮ অক্টোবর আকবরের বিরুদ্ধে প্রথম অভিযোগ করেন সাংবাদিক প্রিয়া রামানি। তিনি টুইট বার্তায় জানান, আকবর তাকে যৌন হয়রানি করেছেন বলে প্রায় একবছর আগে তিনি এক নিবন্ধে উল্লেখ করেছিলেন।  ওই সময় হলিউড তারকা হার্ভি ওয়াইনস্টিনের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে '‘#মি টু’ আন্দোলন চলছিল।   

জানা গেছে,  সাংবাদিক  প্রিয়া রামানির পর আকবরের বিরুদ্ধে আরও ১১ নারী যৌন হেনস্তার অভিযোগ করেছেন।  তারা হলেন,  প্রেরণা সিং, বিন্দ্রা, ঘজালা ওয়াহাব, সুটাপা পাল, আনজু ভারতি, সুপর্ণা শর্মা, সোমা রাহা, মালিনি ভুপ্তা, কণিকা গৌলত, কদমবারি এম ওয়েড, মাজলি দ্যা পু ক্যাম্প এবং রথ ডেভিড।