DBC News
ঢাবি 'ঘ' ইউনিটের ফল বাতিলের দাবিতে অনশন

ঢাবি 'ঘ' ইউনিটের ফল বাতিলের দাবিতে অনশন

প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের 'ঘ' ইউনিটের ফল বাতিল করে নতুন করে পরীক্ষা নেয়ার দাবিতে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই তারা অবস্থান নেন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা, প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িতদের চিহ্ণিত করে তাদের শাস্তির দাবিও জানান। এছাড়া বিগত বছরগুলোতে যারা জালিয়াতির মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে ভর্তি হয়েছেন, তাদের চিহ্নিত করে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিস্কারেরও দাবি জানান আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। প্রশ্নপত্র ফাঁসের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকেই দায়ী করছেন তারা।

এদিকে, ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে নিলেও ফল বাতিলের সিদ্ধান্ত এখনই নেয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ উপাচার্য অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদ।

তিনি জানান, 'ফাঁস বা ডিজিটাল জালিয়াতি আমরা যাই বলি না কেনো আমরা শুধু একজন শিক্ষার্থীর কাছ থেকে পরীক্ষার আগে হাতে লিখা কিছু প্রশ্নের উত্তর পেয়েছি। তা কোনভাবে মিলে গেছে প্রশ্নের সাথে।'

আর ‘ঘ’ ইউনিট ভর্তি পরীক্ষার সমন্বয়কারী সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম বলছেন, যারা ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্র পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে তারা ভর্তি হতে পারবেনা। তিনি বলেন, 'ভর্তি পরীক্ষায় যারা উত্তীর্ন হয়েছে বা যে প্রথম হয়েছে, সে কিন্তু তার শাখা থেকে উত্তীর্ন হতে পারে নি। এ সকল যেসব শিক্ষার্থী আমাদের মৌখিক পরীক্ষায় অংশ নিতে আসবে, আমাদের সে অধিকার আছে এ সকল শিক্ষার্থীদের জালিয়াতি ধরে তা বাতিল করে দেয়ার।'

বৃহস্পতিবার বেলা এগারোটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তত দুই শতাধিক শিক্ষার্থী টিএসসির রাজু ভাস্কর্য থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিল থেকে ‘ঘ’ ইউনিটের পরীক্ষা বাতিলসহ চারটি দাবি জানানো হয়।

এগুলো হলো- ঘ ইউনিটের পরীক্ষা বাতিল করা, পুনরায় পরীক্ষা নেয়া, প্রশ্নপত্র ফঁসে জড়িতদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া এবং ইতিপূর্বে জালিয়াতি করে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের ভর্তি বাতিল করা।

এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগও ফল বাতিল করে আবার ভর্তি পরীক্ষা নেয়াসহ বেশ কিছু দাবি জানিয়েছে।

আন্দোলনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীদের একজন আখতার হোসেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের এই শিক্ষার্থী গত তিন দিন ধরে আমরণ অনশন করছেন। তার শারিরীক অবস্থার অবনতি হওয়ায় বর্তমানে ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এ সমস্যার সমাধান না করলে তিনি মৃত্যবরণ করতে প্রস্তুত বলে জানান।

আখতার হোসেন বলেন, 'আমি আমার অনশন কর্মসূচী চালিয়ে যাব। আমি মৃত্যু বরণ করবো; তারপরও আমি তাদেরকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছোট ভাই হিসাবে মেনে নেবনা। আমার দাবি মেনে নিতে হবে। আমি কোন অযৌক্তিক দাবি করি নি।'

এদিকে, আন্দোলনের বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষক আসিফ নজরুল জানান, 'যদি বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ তার কথায় কর্ণপাত না করেন। তবে আমাদের ধরে নিতে হবে যে, কর্তৃপক্ষ প্রশ্নপত্র ফাঁসের পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন।'

প্রসঙ্গত, এ বছর ‘ঘ’ ইউনিটে ১ হাজার ৬১৫টি আসনের বিপরীতে ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদনকারীর সংখ্যা ছিল ৯৫ হাজার ৩৪১জন। গত শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ঘ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষা শুরুর আগে ৯টা ১৭ মিনিটে পরীক্ষার হাতে লেখা প্রশ্নপত্র পাওয়া যায়। পরীক্ষা শেষ হলে যাচাই করে দেখা গেছে, এর সঙ্গে মোট ৭২টি প্রশ্নের হুবহু মিল রয়েছে।

এই অবস্থায় মঙ্গলবার পরীক্ষার ফল ঘোষণা করা হয়। তাতে ৭০ হাজার ৪৪০ শিক্ষার্থীর মধ্যে ১৮ হাজার ৪৬৩ জন উত্তীর্ণ হয়েছে, পাশের হার ২৬ দশমিক ২১ শতাংশ। যা বিগত কয়েক বছরের তুলনায় দ্বিগুণ থেকে প্রায় তিনগুণ।

এছাড়া, আর ঘ ইউনিটে প্রথম হওয়া শিক্ষার্থী গ ইউনিটের পরীক্ষায় উর্ত্তীণ হতে পারেনি। ঘ ইউনিটের বাংলায় ত্রিশে ত্রিশ, ইংরেজিতে ত্রিশে ২৭.৩০ এবং সর্বমোট ১২০ এ ১১৪.৩০ পেয়েছেন।  অথচ গ ইউনিটের পরীক্ষায় ইংরেজিতে পেয়েছেন মাত্র ২.৪০ এবং সব মিলিয়ে পেয়েছেন ৩৪.৩২।

আরও পড়ুন

সংকট আর প্রতিকূলতায় জর্জরিত মঞ্চনাটক

নানা সংকট আর প্রতিকুলতায় ডুবে আছে দেশের নাট্যদলগুলো। নেই রিহার্সালের জায়গা, নেই পর্যাপ্ত মঞ্চ আর জীবিকার নিশ্চয়তা; তারপরও থিয়েটারকে ভালোবেসে এখনো নাট্যকর্মীরা স...

হজযাত্রায় বিমান ভাড়া ১০ হাজার টাকা কমেছে

এবার হজযাত্রায় বিমান ভাড়া ১০ হাজার টাকা কমেছে। এ বছর যাত্রীপ্রতি ভাড়া লাগবে ১ লাখ ২৮ হাজার টাকা। সচিবালয়ে বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রণালয় এবং ধর্ম মন্...

শাবিপ্রবি ছাত্রের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের অবিচারের কারণে আত্মহত্যা করেছে এক মেধাবী শিক্ষার্থী। ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসে ওই শিক্ষার্থীর বড় বোন ঢ...

'আল্লামা শফীর বক্তব্য ব্যক্তিগত, এটি রাষ্ট্রনীতির সঙ্গে অসামঞ্জস্যপূর্ণ'

মেয়েদের পড়ালেখা বিষয়ে আল্লামা শফী যে বক্তব্য দিয়েছেন, সেটা সম্পূর্ণ তার ব্যক্তিগত মতামত, আর এটা আমাদের রাষ্ট্রনীতির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয় বলে জানিয়েছেন শ...