DBC News
হাতাহাতিতে নিহত জামাল খাশোগি: সৌদি আরব

হাতাহাতিতে নিহত জামাল খাশোগি: সৌদি আরব

তুরস্কের ইস্তানবুলে সৌদি কনস্যুলেটে সাংবাদিক জামাল খাশোগির মৃত্যু নিশ্চিত করেছে সৌদি আরব। শনিবার প্রাথমিক তদন্তের পর রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দিয়েছে দেশটি।

এই ঘটনায় সৌদি গোয়েন্দা সংস্থার উপ-প্রধান আহমেদ আল আসিরি ও রাজপরিবারের উপদেষ্টা সৌদ আল কাহতানিকে বরখাস্ত করেছে দেশটি। সেই সাথে জামাল খাশোগি হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে ১৮ জনকে আটক করা হয়েছে। 

এক বিবৃতিতে বলা হয়, দোসরা অক্টোবর ইস্তানবুলের সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশের পর খাশোগিকে জিজ্ঞাসাবাদ করে কয়েকজন সৌদি কর্মকর্তা। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে হাতাহাতির সময় মারা যান খাশোগি। এতদিন তার মৃত্যুর জোর গুঞ্জন চললেও, নিখোঁজের ১৮ দিন পর অবশেষে খাশোগির মৃত্যু নিশ্চিত করল সৌদি আরব।

এদিকে, সৌদি বাদশাহ দেশটির গোয়েন্দা বিভাগকে ঢেলে সাজাতে ক্রাউন প্রিন্স সালমানের নেতৃত্বে একটি মন্ত্রিপরিষদীয় কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন।

গত ২রা অক্টোবর ইস্তাম্বুল শহরে অবস্থিত সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশের পর নিখোঁজ হন জামাল খাশোগি। তিনি কিছু গুরুত্বপূর্ণ কাগজ নেয়ার জন্য সেখানে যান। বাগদত্তা হাতিস চেঙ্গিসকে বিয়ে করার জন্য এসব কাগজপত্রের প্রয়োজন ছিল। হাতিসকে কনস্যুলেটের বাইরে রেখেই তিনি ভেতরে প্রবেশ করেন। হাতিস সেখানে বেশ কয়েক ঘণ্টা অপেক্ষায় থাকার পরে খাশোগি আর ফিরে আসেননি। এরপর থেকেই জামাল খাঁশোগির আর কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি।

ওই ঘটনার পরপরই তুরস্ক দাবি করে, কনস্যুলেটের ভেতরেই জামাল খাশোগিকে টুকরো টুকরো করে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু তুরস্কের এই অভিযোগ এতদিন অস্বীকার করে আসছিল রিয়াদ।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ানের সঙ্গে সৌদির বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদের ফোনে আলাপ হওয়ার কিছুক্ষণ পরেই সৌদির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের খবরে খাশোগি নিহতের বিষয়টি জানানো হয়।

খবরে বলা হয়, ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে খাশোগির সঙ্গে কয়েকজন ব্যক্তির সংঘর্ষ ঘটে। এর ফলেই তার মৃত্যু হয়। খাশোগি হত্যার বিষয়ে তদন্ত এখনও চলছে এবং এই ঘটনায় ১৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে খবরে জানানো হয়। একই সঙ্গে দুই শীর্ষ কর্মকর্তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতির বিষয়টিও নিশ্চিত করা হয়।

এদিকে হোয়াইট হাউসের তরফ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, সৌদির তদন্ত প্রতিবেদনের বিষয়ে তারা জানতে পেরেছে। জামাল খাশোগির মৃত্যু ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র গভীরভাবে শোকাহত বলে জানানো হয়।

সৌদি আরব জামাল খাশোগির মৃত্যর খবর নিশ্চত করার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলছেন, 'যা ঘটেছে তা গ্রহণযোগ্য নয়। তবে সৌদি আরব তাদের ঘনিষ্ঠ মিত্র দেশ।'

এক গোলটেবিল বৈঠকে ট্রাম্প বলেন, 'ঘটনার সাথে জড়িতদের আটক একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।' এত দ্রুত পদক্ষেপ নেবার জন্য সৌদি সরকারের প্রশংসাও করেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।