DBC News
৬ মাসের মধ্যে চীনা অর্থ বিনিয়োগ করতে হবে

৬ মাসের মধ্যে চীনা অর্থ বিনিয়োগ করতে হবে

৬ মাসের মধ্যেই চীনের কাছ থেকে পাওয়া অর্থ পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করতে হবে। তা না হলে পাওয়া যাবে না ১০ শতাংশ বিশেষ করছাড় সুবিধা। জানিয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ, ডিএসই কর্তৃপক্ষ। দ্রুত এই বিপুল অর্থের বিনিয়োগে ঢাকার পুঁজিবাজার গতিশীল হবে বলে সবাই আশাবাদী।

চীনা কনসোর্টিয়াম থেকে পাওয়া প্রায় ৯৪৭ কোটি টাকা হস্তান্তর শুরু হয়েছে। চলতি সপ্তাহেও ট্রেকহোল্ডারদের মাঝে চলবে চেক বিতরণ। বিশেষ করছাড় সুবিধা পাওয়ার জন্য ৬ মাসের মধ্যেই এই টাকা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করতে হবে বলে জানান ডিএসই'র ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাজেদুর রহমান।

তিনি বলেন, 'টাকাটা যারা পাবেন, তাদেরকে একটি আলাদা ব্যাংক একাউন্টে টাকা রাখতে হবে এবং ছয় মাসের মধ্যে টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। আগে যেখানে ১৫ শতাংশ কর দিতে হতো; এক্ষেত্রে ১০ শতাংশ করছাড় পাবেন অর্থাৎ ৫ শতাংশ কর দিতে হবে।'   

খুব দ্রুতই এই অর্থ বিনিয়োগ হলে তা বাজারকে গতিশীল করবে বলেই আশা ডিএসই'র ট্রেকহোল্ডারদের। ট্রাস্টি সিকিউরিটিজ লিমিটেড এর চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম মোল্লা বলেন, 'আমরা যারা ট্রেকহোল্ডার আছি তারা আজ যার যার অংশের টাকা তুলেছি। আমার দৃঢ় বিশ্বাস সমস্ত টাকা যদি শেয়ার মার্কেটে বিনিয়োগ হয় তবে মার্কেটের গতি পরিবর্তন হবে।' 

এত আশার খবরের মাঝেও গেল সপ্তাহের শুরুতেই ২১ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ দরপতন হয়েছে পুঁজিবাজারে। ডিএসই বলছে- চলতি সপ্তাহেই এই ধকল কেটে যাবে বাজারে।

ডিএসই'র ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাজেদুর রহমান বলেন, 'আমাদের এখান থেকে প্রায় ৯শ কোটি টাকর মত বন্টন হবে; আইসিবি থেকে হবে আরও প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা। সব মিলিয়ে এই ফান্ড মার্কেটে ভালই সাড়া ফেলবে।'  

আইসিবি ও ট্রেকহোল্ডাররা বিনিয়োগ শুরু করলেই মাঠে নামবে ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীরাও। ব্রাক ইপিএল লিমিটেড এর প্রধান নির্বাহী শেরিফ রহমান বলেন, 'চায়নার টাকায় আড়াইশ সদস্যের সকলে যদি তিন কোটি টাকার শেয়ার কেনে তবে সেই হাউজের আরও লোকজন ও শেয়ার কিনবে। ফলে প্রতিদিন ২০০ থেকে ৫০০ পয়েন্ট বাড়বে। শেয়ারে কোন দিনও লস হয় না।'

চীনের দেয়া মোট অর্থ থেকে জনপ্রতি গড়ে প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকার চেক পাচ্ছেন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের আড়াইশো ট্রেকহোল্ডার।