DBC News
যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচন আজ

যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচন আজ

যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনে আজ। বাংলাদেশ সময় বিকাল ৫টায় শুরু হবে ভোটগ্রহণ। সিনেটের ৩৫টি এবং হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের ৪৩৫টি আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও ৩৬টি রাজ্যের গভর্নরও এ দিনই নির্বাচন করবেন ভোটাররা।

এরই মধ্যে তিন কোটি ৪০ লাখ ভোটার আগাম ভোট দিয়েছেন। এ নির্বাচনেই নির্ধারিত হবে কতটা দাপটের সাথে আগামী দুই বছর ক্ষমতায় থাকবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। জরিপে ডেমোক্র্যাটরা এগিয়ে থাকলেও সোমবার কয়েকটি মার্কিন মিডিয়া জানিয়েছে, দুই দলের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস পাওয়া যাচ্ছে।

এদিকে সোমবারও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও সাবেক প্রেসিডেন্ট ওবামা নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার প্রচারণায় অভিবাসন ইস্যুকে গুরুত্ব দেন। অভিবাসন এবং স্বাস্থ্য বিল নিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কাজের নিন্দা জানান ওবামা। তিনি যুক্তরাষ্ট্রকে বিভক্ত না করতে ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানান । অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে এবারের নির্বাচনে লড়ছেন ২৭৩ নারী প্রার্থী। যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত ৩৪ লাখ মুসলমানের মধ্যে এবার ৯০ জন লড়ছেন নির্বাচনে। দেশটির ইতিহাসে মুসলিম প্রতিদ্বন্ধীরা এবারই সবচেয়ে বেশি সংখ্যয় নির্বাচনে অংশগ্রহন করেছেন।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকাল ৮টায় ভোট গ্রহণ শুরু হবে। শেষ হবে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ১১টার মধ্যে।

মধ্যবর্তী নির্বাচন হবে কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের ৪৩৫ আসনের সবক’টিতে। আর ১০০ আসনের উচ্চকক্ষ সিনেটের ৩৫ আসনে ( অবসর গ্রহণের কারণে ২টি আসন শূন্য ) নির্বাচন হবে। একই দিন ৩৯ রাজ্যে গভর্নর নির্বাচনও হবে।

প্রতিনিধি পরিষদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে হলে ডেমোক্র্যাটদের বর্তমান আসনগুলোর পাশাপাশি আরও ২৪টি আসনে জিততে হবে। সিনেটের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে বাড়তি দুটি আসন প্রয়োজন ডেমোক্রেটিক দলের।

কংগ্রেসের প্রতিনিধি পরিষদে ২৩৫, সিনেটে ২২ ও গভর্নর পদে লড়ছেন ১৬ নারী। তাদের মধ্যে প্রতিনিধি পরিষদে ডেমোক্রেটিক দলের প্রার্থী রেকর্ডসংখ্যক ১৮০ জনের বেশি। রিপাবলিকান নারী প্রার্থীর সংখ্যা অর্ধশতাধিক।

প্রথমবারের মতো ডেমোক্রেটিক দলে শ্বেতাঙ্গ প্রার্থী ৫০ শতাংশের নিচে। ডেমোক্রেটিক শিবিরে আফ্রো-আমেরিকান, ল্যাটিনো ও এশিয়ান-আমেরিকান প্রার্থী অর্ধেকের বেশি। প্রথমবারের মতো কৃষ্ণাঙ্গ নারী, মুসলিম নারী, সর্বকনিষ্ঠ নারী কংগ্রেস সদস্য পেতে যাচ্ছে ডেমোক্রেটিক দল।

প্রতি চার বছর পরপর প্রতিনিধি পরিষদের সব আসনে নির্বাচন হয়ে থাকে। আর প্রতি দুই বছর পরপর সিনেটের এক-তৃতীয়াংশ আসনের নির্বাচন হয়। সিনেট সদস্যদের মেয়াদকাল ৬ বছর। পার্লামেন্টের উভয়কক্ষেই বর্তমানে সংখ্যাগরিষ্ঠ রিপাবলিকান দল।