DBC News
ডা. জাফরুল্লাহ-মুর্তজার ফোনালাপ ফাঁস

ডা. জাফরুল্লাহ-মুর্তজার ফোনালাপ ফাঁস

ছাত্রদের মারপিটে জড়িয়ে পড়ার উস্কানি দিয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও বিএনপিপন্থি বুদ্ধিজীবী ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরী। আর নারীদের দিয়ে কটন টেক্সটাইলের হুজুরকে পেটানোর পরিকল্পনা ছিল জাফরুল্লাহর। এমন তথ্য উঠে এসেছে ডা. জাফরুল্লাহ ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কর্মকর্তা মুর্তজার ফোনালাপে। 

ফোনালাপে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী ও মুর্তজা বলেন-
 
...জাফরুল্লাহ: দাবড়াও একটু ভাল করে

জাফরুল্লাহ: ২০ টা করে ছাত্র রাখ সেখানে, ভালভাবে খাওয়া-দাওয়া করাও। এখন  Aggressive হও কথা বুঝছ..?

জাফরুল্লাহ: কালকে র‌্যাবের অ্যাকশানে সবাই যখন ইয়ে করতেছে। এই সমস্ত Fruitfully ইয়ে করতে হবে। এদের কনস্পিরেসিকে থামাতে হলে একমাত্র ও যদি এক কদম বাড়ে তাহলে আমাকে দুই কদম বাড়তে হবে।

মুর্তজা: না আজকে ঐ যেটা টার্গেট ছিল কটন টেক্সটাইলের হুজুর এক দাঁড়িওয়ালা, সে সেই দিন কে ঝামেলা করছে, সে আজকে মার খেয়েছে, মেয়েরাই মারছে ধরে তাকে।

জাফরুল্লাহ: হ্যাঁ জাহাঙ্গীরনগরকে ইনভল্ব করে দিতে পারলে অনেক বেশি লাভ হবে।

জাফরুল্লাহ: এটা এগ্রিসিভ, এটা তোমাদের প্রত্যেকটা থানায় ১০ টা করে ছাত্র রাখো।

মুর্তজা: এখন ৫০ জন লিস্ট করা হয়েছে। সব সময় তারা থাকবে।

জাফরুল্লাহ: আমাদের তো ৫ হাজার ছাত্রই আছে। তাদের কেন্দ্রে যদি আমরা ৫০ জনকে ইনভল্ব করি। আর মারপিটের জন্য ৫০ জনের বেশি লোক লাগবে না।

জাফরুল্লাহ: আরও ২ টা। এখন নারী নির্যাতন করো- একটা। একটা নারী নির্যাতনে করো। সিভিল কেস আর ক্রিমিনাল কেস। না হলে, আমাদের দুইটা মেয়েকে দিয়ে করিয়ে দাও কথা বুঝছ..?