DBC News
ঐক্যফ্রন্টের রোডমার্চ স্থগিত

ঐক্যফ্রন্টের রোডমার্চ স্থগিত

রাজশাহীর অভিমুখে রোডমার্চ স্থগিত ঘোষণা করেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। একথা জানিয়েছেন ফ্রন্টের মুখপাত্র ও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ফখরুল জানান, ঐক্যফ্রন্টের নেতারা আলোচনা করে আগামীকালের রোডমার্চ কর্মসূচি স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে পরশু রাজশাহীর মাদ্রাসা রোডে ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ হবে।

জানা গেছে, সংলাপ নিয়ে বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলন করবেন, এছাড়া সিইসি ভাষণ দেবেন। সেগুলো পর্যবেক্ষণ করে সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য রোড মার্চ স্থগিত করা হয়েছে। 

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার সংলাপে সমাধান না হলে দাবি আদায়ের জন্য রাজপথকেই বেছে নেবেন বলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা জানান। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের জনসভায় এমন বার্তাই দেন ঐক্যফ্রন্ট নেতারা। পাশাপাশি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য খালেদা জিয়ার মুক্তিও চান তারা। আজ বুধবার, দ্বিতীয় দফার সংলাপে সরকার তাদের দাবি না মানলে সারাদেশে লংমার্চের ঘোষণাও দেয়া হয় জনসভা থেকে।

জনসভায় বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান আন্দালিব রহমান পার্থ সবাইকে সুসংগঠিত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, 'সংলাপ চলবে। নির্বাচন এমন সরকারের অধীনে হবে যাতে করে বাংলাদেশের মানুষ সুষ্ঠুভাবে ভোট দিতে সক্ষম হবে।'

সমাবেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, 'বেগম খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের মা।' এ সময় তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, 'খালেদা জিয়া একজন আপসহীন নেত্রী তাঁকে প্যারোলে মুক্তি নিতে হবে?' এ সময় ক্ষমতাসীনদের উদ্দেশে তিনি বলেন, 'সময় আসছে আপনাদের প্যারোলেই কবরে যেতে হবে।'

দাবি না মানলে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়ে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, 'এই মঞ্চ এবং এর আশেপাশে যত মানুষ আছে তাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রাজপথ প্রকম্পিত করে, আন্দোলন করে আমরা আমাদের দাবি আদায় করবো।'

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে নতুন যোগ দেয়া কৃষক-শ্রমিক-জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেন, 'আমি খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই না, কারণ আজকে খালেদা জিয়ার মুক্তি চাওয়ার কোনও দরকার নেই। আমাদের চিন্তা করতে হবে শেখ হাসিনার মুক্তি কবে হবে।'

ক্ষমতাসীন সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে আ স ম আবদুর রব বলেন, 'আপনারা সব রাজবন্দিদের মুক্তি দেন না হলে আপনাদের খবর আছে।' এ সময় তিনি আরও বলেন, 'লক্ষ  লক্ষ জনতা আজ জেগেছে, আপনাদের বিচার হবে জনতার আদালতে।'

এ সময় সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য আপসহীন সংগ্রাম চালিয়ে যাবার ঘোষণা দেন ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষনেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন।

তিনি বলেন, 'একটা সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য এখান থেকেই আমরা আপসহীনভাবে এই আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার শপথ নিই । সেই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে দেশের সব জনগণের রাষ্ট্র পরিচালনার অধিকার আমরা ফিরে পাবো।'

আর প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বুধবার দ্বিতীয়দফা সংলাপ ফলপ্রসু না হলে রাজশাহী অভিমুখে লংমার্চ কর্মসূচির ঘোষণা দেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, 'যদি দ্বিতীয় দফার সংলাপেও আমাদের দাবি দাওয়া মেনে নেয়া না হয় তাহলে আমরা রাজশাহীতে যাত্রা করবো রোডমার্চ করে।' এ সময় তিনি ঘোষণা করেন, আসছে ৯ই নভেম্বর রাজশাহীতে জনসভা হবে। এছাড়া খুলনা, ময়মনসিংহ, বরিশালেও জনসভা হবে।

আর নির্বাচন কমিশন যদি তফসিল না পেছায় তাহলে নির্বাচন কমিশন অভিমুখে পদযাত্রা হবে বলেও ঘোষণা দেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

আরও পড়ুন

বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি প্রশংসার যোগ্য: মার্কিন রাষ্ট্রদূত

বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক পরিস্থিতি নিয়ে সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশি নারী প্রিয়া সাহা যে তথ্য উপস্থাপন করেছেন তা সঠিক নয় বলে মনে...

লন্ডন পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

সরকারি সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডন পৌঁছেছেন। প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লা...

'বন্যা মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ নাই'

বন্যা মোকাবেলায় সরকারের দৃশ্যমান কোনো পদক্ষেপ নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গুলশানে চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে বিএনপির স্থায়ী ক...

আন্দোলনের আগেই খালেদার মুক্তির প্রত্যাশা

বড় কোনো আন্দোলনের আগেই সরকার বিএনপির কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেবে। এমন আশা প্রকাশ করেছেন দলটির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নাল আবদীন ফারুক। সকালে...