DBC News
নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে বিতর্ক

নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে বিতর্ক

বিএনপিকে নিয়ে গড়ে তোলা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ৭ দফা দাবির অন্যতম নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার। দুই দফা সংলাপে এই সরকারের রূপরেখা নিয়ে ক্ষমতাসীন জোটের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে তাদের। কিন্তু তার কোনও সুরাহা হয়নি। তার ওপর সংবিধান মেনে নির্বাচন করতে তফসিল ঘোষণা করতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন। এ অবস্থায় প্রশ্ন উঠেছে, সংবিধানের মধ্যে থেকেই কী ধরনের উদ্যোগ নিতে পারে সরকার?

সংবিধানের দোহাই দিয়ে নয়, সব রাজনৈতিক দলকে আস্থায় এনেই নির্বাচনের উদ্যোগ নিতে হবে বলে মনে করেন সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন এবং অধ্যাপক আসিফ নজরুল। আর ব্যরিস্টার আমির উল ইসলাম এবং সাবেক আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদ মনে করেন সংবিধানের মধ্যে থেকেই গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করা সম্ভব।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আসিফ নজরুল বলেন,  ‘ নির্বাচনী প্রচারণার ক্ষেত্রে বিরোধীদলকে সমান সুযোগ এবং সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ তৈরিতে সরকারকে দায়িত্বশীল হতে হবে। এখানে আইনের বা সংবিধানের বাধা রয়েছে, এইসব অজুহাত দেখিয়ে লাভ নেই। সংবিধান পরিবর্তনের শক্তি ও ক্ষমতা সরকারের রয়েছে। সংবিধানের মধ্যেই সংবিধান পরিবর্তনের অনেক সুযোগ রয়েছে।’

এদিকে, সুপ্রিমকোর্ট সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ‘সংসদ মেয়াদ শেষ হওয়ার পরেও ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করা যায়। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের যে মূল দাবি, সংসদ ভেঙ্গে দিতে হবে, সেটা সংবিধানের মধ্য থেকেই সংসদ ভেঙ্গে দেয়া যাবে। ঐক্যফ্রন্টের মতামত অনুযায়ী পাঁচজনকে যদি নেয়া হয় এবং তাদের মধ্যে থেকে যদি বিভিন্ন মন্ত্রণালয় দেয়া হয়, তাহলে সংবিধানও সংশোধন করতে হল না।’

সংবিধান বিশেষজ্ঞ ব্যারিস্টার এম আমির-উল ইসলাম এবং সাবেক আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদ মনে করেন, সরকার চাইলেই সংবিধানের বাইরে যেতে পারে না।

সংবিধান বিশেষজ্ঞ ব্যারিস্টার এম আমির-উল ইসলাম বলেন, ‘রাজনৈতিকভাবে তারা কি চাইছেন, সে বিষয়টা আলাদা করা। সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দেয়া উচিত ছিল, এখনও সেটা উচিত, সেটা হলো যে, নির্বাচন কমিশনের ভূমিকাটা তুলে ধরা। গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশন গঠন করলে বাকি সমস্যাগুলো আর সমস্যা থাকে না।’

সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ জানান, ‘অন্য কাউকে যদি নির্বাচনের সময় সরকার গঠন করার জন্য ক্ষমতা দেয়া হয়, সেটা সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হবে। কাজেই এটা কোনও অবস্থাতেই সম্ভব না। আর এর সুযোগ নেই এবং প্রয়োজনীয়তাও নেই। এছাড়া যেসব দাবি উত্থাপন করা হয়েছে, সেগুলো আমার মনে হয় নির্বাচনকে বানচাল ও অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করার জন্যই।’

এদিকে, সমঝোতা ছাড়াই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হলে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়ে কর্মসূচি ঘোষণা করেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

আরও পড়ুন

বারভিডা কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি না থাকায় ক্ষোভ

বাংলাদেশ রিকন্ডিশন্ড ভেহিক্যালস ইমপোর্টার্স অ্যান্ড ডিলারস অ্যাসোসিয়েশন-বারভিডা'র কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি না থাকায়...

প্রশ্নপত্রে পর্নো তারকার নাম: খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে

রাজধানীর রাককৃষ্ণ মিশন উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির বাংলা প্রথম পত্রের বহু নির্বাচনি প্রশ্নপত্রে (এমসিকিউ) দু'টি প্রশ্নের সম্ভাব্য উত্তরে দুই পর্নো তারকার নাম এস...

'আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা বেড়েছে'

টানা ক্ষমতায় থেকে উন্নয়ন করার কারণেই আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা বেড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শুক্রবার, রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ...

'বিএনপি সংসদে যাবে না'

বিএনপি সংসদে যাবে না, দলের নীতিনির্ধারণী ফোরামে সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। শুক্রবার দুপুরে, সুপ্রিম কোর্ট...

এলপিজি সিলিন্ডারের অসতর্ক ব্যবহারই বড় দুর্ঘটনার ঝুঁকি

দেশে এখন এলপিজি সিলিন্ডার রয়েছে প্রায় দেড় কোটি। ব্যবহারকারীদের বেশিরভাগই চুলা জ্বালান অসতর্কভাবে। ফলে ঝুঁকি থেকে যাচ্ছে বড় বড় দুর্ঘটনার।  এলপিজি বোতলীকরন ও...

দক্ষ কর্মী নিতে আগ্রহী আরব আমিরাত

বাংলাদেশ থেকে দক্ষ কর্মী নিতে বেশি আগ্রহী সংযুক্ত আরব আমিরাত। এছাড়া এখন থেকে ভ্রমণ ভিসা পদ্ধতিও সহজ করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন, সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রদূত সৈ...