DBC News
বাল্যবিয়ে বন্ধে কাজ করছে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা

বাল্যবিয়ে বন্ধে কাজ করছে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা

বাল্যবিয়ে রোধে বগুড়ায় কাজ করছেন শত শত স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী। গ্রামে গ্রামে ঘুরে তারা সচেতন করে তুলছেন অভিভাবকদের। ক্যাম্পেইন, সমাবেশ ও উঠান বৈঠকের মাধ্যমে এরই মধ্যে প্রায় ১০ হাজার মানুষকে শিশু অধিকার প্রতিষ্ঠার কাজে যুক্ত করেছে তারা। ইয়ুথ ফোরাম নামে সংগঠনের ব্যানারে তাদের এই উদ্যোগ পাল্টে দিচ্ছে মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি।

ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে একেক দিন একেক এলাকায় কাজ করে ইয়ুথ ফোরামের সদস্যরা। বাড়ির দরজায় দাঁড়িয়ে বোঝানোর চেষ্টা করে বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে। শিশু অধিকার, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য নিয়েও অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলেন তারা।  ইয়ুথ ফোরামের কারণেই অনেক শিশু বাল্যবিয়ের অভিশাপ এড়িয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন পড়ালেখা ।

এ বিষয়ে ইয়ুথ ফোরামের সদস্যরা বলেন, ‘আমরা বাল্যবিবাহ রোধ নিয়ে কাজ করি এবং শিশুরা যাতে ঝড়ে না পরে সেগুলো নিয়ে কাজ করি। স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা এসব বিষয়ে আমাদের সবসময় সহযোগিতা করে যাচ্ছে। এর ফলে আমরা ভবিষ্যতে আমাদের নেতৃত্বকে ধরে রাখতে পারবো।’

ইয়ুথ ফোরামের নানা উদ্যোগে অভিভাবকরা তো বটেই, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরাও সচেতন হচ্ছেন। মেয়েরা বাল্যবিয়ের প্রতিবাদ করতে শিখছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনও তাদের কাছ থেকে নানা সহযোগিতা পাচ্ছেন।

বগুড়া সদর উপজেলার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আজিজুর রহমান বলেন, 'কোথাও বাল্যবিয়ের ঘটনা ঘটলে তাদের মাধ্যমে আমরা সংবাদ পেয়ে যাই। সংবাদ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করি। যার ফলে বাল্যবিবাহ দূর করতে সক্ষম হই।'

বগুড়া জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ খান রনি বলেন, 'এই সংগঠনের সদস্যরা প্রতিটি সদস্য বাড়ি বাড়ি গিয়ে যে সচেতনতামূলক কাজ করছে, এর ফলে মানুষ সচেতন হচ্ছে। যার ফলে বাল্যবিবাহের হার কমে আসছে।'

আর বগুড়া পৌরসভার তিন নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কবিরাজ তরুণ চক্রবর্তী বলেন, 'মেয়েরাই সচেতন হয়ে মেয়েদেরকে সচেতন করছে। ইয়ুথ ফোরাম যে ভূমিকা পালন করছে তা খুবই ভালো একটি উদ্যোগ এবং এর সুফলও পাওয়া যাচ্ছে।'

সংগঠনটির নানা তৎপরতায় জেলার বিভিন্ন গ্রামে শিশুর অধিকার অধিকার প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে।

বগুড়া ইয়ুথ ফোরাম এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সঞ্জু রায় বলেন, 'এখানে সরাসরি কাজ করছে প্রায় ৮০ জন এবং শিশু নেতারাসহ কাজ করছে প্রায় ৪০০জন। বগুড়াকে শিশুবান্ধব হিসেবে গড়ে তুলতে যতটুকু করা সম্ভব তা আমরা করে যাচ্ছি।’

২০০৬ সালে শিশু ফোরাম আর ২০১৫ সালে ইয়ুথ ফোরাম আত্মপ্রকাশ করে। তারপর থেকে বাল্যবিয়ে রোধ, শিশুশ্রম রোধ, ঝরেপড়া শিশুদের স্কুলমুখী করাসহ নানা বিষয়ে কাজ করে চলেছে তারা।

আরও পড়ুন

হবিগঞ্জের-৪: অস্তিত্বের লড়াইয়ে বিএনপি; জয় ধরে রাখতে চায় আওয়ামী লীগ

হবিগঞ্জ জেলার চারটি সংসদীয় আসন বরাবরই ছিল আওয়ামী লীগের দখলে। তবে এবারের নির্বাচন দলটির জন্য চ্যালেঞ্জে পরিণত হয়েছে। আর দীর্ঘ ১০ বছর ক্ষমতার বাইরে থাকা বিএনপি এব...

ইভিএম নিয়ে ভোটারদের মিশ্র প্রতিক্রিয়া

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দেশের যে ৬টি আসনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন-ইভিএমের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে তার একটি খুলনা-২। এই আসনের সব কেন্দ্রেই ভোটাররা ইভিএমের মাধ...

অধ্যক্ষসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা করলেন অরিত্রীর বাবা

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী অরিত্রী অধিকারীকে আত্মহত্যার প্ররোচনা দেয়ার অভিযোগে অধ্যক্ষসহ তিনজনের নামে মামলা দায়ের করেছেন অরিত্র...

না ফেরার দেশে বীর প্রতীক তারামন বিবি

চলে গেলেন মুক্তিযোদ্ধা বীর প্রতীক তারামন বিবি। শুক্রবার রাত দেড়টার দিকে কুড়িগ্রামের রাজীবপুর উপজেলার কাচারীপাড়ায় নিজ বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।&n...