DBC News
কর্মক্ষেত্রে নারীবান্ধব কর্মপরিবেশ তৈরির বিকল্প নেই

কর্মক্ষেত্রে নারীবান্ধব কর্মপরিবেশ তৈরির বিকল্প নেই

এক দশকে নারী শিক্ষা ও ক্ষমতায়নে অনেকটা পথ হেঁটেছে বাংলাদেশ। একদিকে, পুরুষের তুলনায় বেড়েছে শিক্ষার হার, অন্যদিকে অর্থনীতিতে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে অবদান রাখছেন আজকের নারীরা। এই উন্নয়নযাত্রায় নারীর প্রতি সংহিসতা- কাঙ্ক্ষিত সাফল্য অর্জনের অন্তরায় বলে মনে করেন, মানবাধিকারকর্মীরা।  আর অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড থেকে ঝরে পড়া ঠেকাতে নারীবান্ধব কর্ম পরিবেশ তৈরির বিকল্প নেই বলে মনে করেন অর্থনীতিবিদরা।

১০ বছর আগেও চিত্রটা ছিলো উল্টো। পুরুষ আর নারীর শিক্ষার হারের অনুপাত ছিলো ৬৫ আর ৩৫।  এখন অনুপাত পাল্টে গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৪৭ আর ৫৩-তে।  নারী শিক্ষার হারে বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্বে ১০৯তম। কিন্তু উচ্চতর শিক্ষায় নারীর অবস্থান এখনও অনেক পিছিয়ে।

শিক্ষাবিদ অধ্যাপক কায়কোবাদ বলেন, 'উপবৃত্তির অর্থ মায়ের মোবাইল ব্যাংকে এ জমা হচ্ছে। এখানে কোন কারচুপি হচ্ছে না। এই ধরনের আরও অনেক ইতিবাচক উদ্যোগ নিয়ে নারীর শিক্ষাকে এগিয়ে নেয়া দরকার। তবে উচ্চ শিক্ষার ক্ষেত্রে পুরুষদের তুলনায় এখনও মহিলারা পিছিয়ে।'  

নারী শিক্ষার অগ্রগতি অর্থনীতিতে শক্তিশালী অবস্থান এনে দিয়েছে। এখন দেশের শ্রমবাজারের ৩৬ শতাংশ নারী। নারী উদ্যোক্তা তৈরি এবং উন্নয়নের জন্য বাজেটের প্রায় ৩০ভাগ বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে। তবে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড থেকে নারীদের ঝরে পড়া ঠেকানোই এখন মূল চ্যালেঞ্জ। 

অর্থনীতিবিদ ড. নাজনীন আহমেদ বলেন, 'আশি ও নব্বই দশকে নারীরা যে সব ক্ষেত্রে কাজ করতে শুরু করে তার চাইতে গত ১০ দশ বছরে নারীরা কর্পোরেট আথবা রেমুনারেটিভ খাতে অনেক বেশি কাজ করতে এসেছে। শিক্ষিত নারীদের শ্রমবাজারে আংশগ্রহণ বেড়েছে। নারীর অগ্রযাত্রা আরও বেশি দ্রুততর করতে হলে, তাদের সাপোর্ট সিস্টেমকে সহক করার উদ্যোগই নেয়া উচিত।' 

স্বাধীনতার পর নারী জাগরণের যে জোয়ার তৈরি হয়েছিলো, তা থমকে যায় ৭৫-এর পর।  দীর্ঘ প্রতিবন্ধকতার পথ পেরিয়ে, বিগত এক দশকে আবারও ঘুরে দাঁড়িয়েছেন নারীরা। এখন দেশের সরকারপ্রধানসহ মন্ত্রিসভায় আছেন ৫জন নারী। আর জাতীয় সংসদে ৫০টি সংরক্ষিত আসনের পাশাপাশি সরাসরি ভোটে নির্বাচিত রয়েছেন ২৩ জন নারী সদস্য। রাজনৈতিক ক্ষমতায়নে ১৫৫টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৭ম। 

মানবাধিকার কর্মী রোকেয়া কবির বলেন, 'নারীরা যে দক্ষতা নিয়ে কাজে যোগ দিচ্ছে সেখানে যদি ডিজায়াবেলিং এনভায়রনমেন্ট থাকে তবে তারা সে কাজটি করতে পারবে না। ডিজায়াবেলিং এনভায়রনমেন্টকে এবিলিং এনভায়রনমেন্টে পরিণত করতে, আমাদেত সরকারি বেসরকারি সকল শক্তিকে উদ্যোগ নিতে হবে।' 

নারী-পুরুষ সমতায় দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান প্রথম। নারীর এই অগ্রযাত্রা বেগবান করতে, সংহিসতা প্রতিরোধ এবং সহায়ক পরিবেশ নিশ্চিতের কথা বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুন

ডা. জাকিয়া নুরের শপথ গ্রহণ

একাদশ জাতীয় সংসদের কিশোরগঞ্জ-১ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নির্বাচিত সংসদ সদস্য সৈয়দা জাকিয়া নুর শপথ নিয়েছেন। আজ শনিবার দুপুরে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সংস...

সংরক্ষিত নারী আসনে ৪৯ জনকে বিজয়ী ঘোষণা

একাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনে ৪৯ জনের মনোনয়নপত্রই বৈধ হওয়ায় সবাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। আজ শনিবার প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সময় শেষে বিকেল ৫ট...

রংপুরে বাড়ছে নারী নির্যাতন

গত চার মাসে রংপুর মেট্রোপলিটন এলাকায় নারী নির্যাতনের ঘটনায় ৪৭টি মামলা হয়েছে। যার মধ্যে ২৩টিই ধর্ষণ, ধর্ষণের চেষ্টা ও যৌন নিপীড়ন। বিচারহীনতা ও সচেতনতার অভাবে এসব...

তরুণী ধর্ষণ মামলায় দুই পুলিশ কর্মকর্তা ৬ দিনের রিমান্ডে

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় দু'দিন আটকে রেখে তরুণীকে ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে ৬ দিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে, জেলা জুডিশিয়াল ম্যা...