DBC News
'বাবার পরিচয়ে নয়, নিজ যোগ্যতায় মনোনয়ন তালিকায়'

'বাবার পরিচয়ে নয়, নিজ যোগ্যতায় মনোনয়ন তালিকায়'

প্রয়াত নেতাদের সন্তান ছাড়াও, বিকল্প প্রার্থী হিসেবে বেশ কয়েকজন বিএনপি নেতার ছেলে বা মেয়েও প্রার্থী হয়েছেন। বিকল্প হিসেবে থাকা এসব প্রার্থীর দাবি বাবার পরিচয় কিংবা জনপ্রিয়তায় নয়, নিজেদের যোগ্যতার কারণেই দলের পছন্দের তালিকায় আছেন তারা। সব মিলিয়ে বিএনপির এমন প্রার্থী সংখ্যা ৫০ এরও বেশি।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনে নয় শ'র বেশি প্রার্থীকে প্রাথমিক মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি। হাতে গোনা কয়েকটি ছাড়া সব আসনেই একাধিক বিকল্প প্রার্থী রেখেছে দলটি। যার মধ্যে রয়েছেন দলের প্রয়াত নেতার স্বজনরা। 

প্রয়াত মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে খোন্দকার আখতার হামিদ ডাবলু বলেন, 'যেহেতু আমি খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে, বাবাকে বাদ দিয়ে আমি কিছু বলতে পারবো না। বাবা যদি আমার জন্য ৭০ শতাংশ কাজ করে থাকেন তাহলে বাকি কাজ করার স্বক্ষমতা আমার আছে।'

প্রয়াত আ স ম হান্নান শাহর ছেলে শাহ রিয়াজুল হান্নান বলেন, 'যারা দলের জন্য কাজ করেছেন তাদের সন্তানেরা কিন্তু অগোচরেই দলের সঙ্গে থাকেন এবং কাজ করেন।'

এছাড়া রয়েছেন প্রয়াত স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলামের ছেলে অনিন্দ ইসলাম অমিত, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকারের ছেলে ব্যারিস্টার নওশাদ জমির, স্থায়ী কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম মিয়ার স্ত্রী শাহিদা রফিক, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের স্ত্রী আফরোজা আব্বাস, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকার ছেলে ইশরাক হোসেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানউল্লাহ আমানের ছেলে ইরফান ইবনে আমান ও সাবেক সংসদ সদস্য এসএ খালেকের ছেলে এসএ সিদ্দিক।  মনোনয়ন পেয়েছেন নিখোজ ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসিনা রুশদির লুনা।

সাবেক সংসদ সদস্য এস এ খালেকের ছেলে এস এ সিদ্দিক সাজু বলেন, 'আমার বাবা হয়তো জনপ্রিয় বা জননেতা সব ই। কিন্তু এটা জনগণই বিবেচনা করবে যে এলাকার কর্মকাণ্ডে মানুষের সঙ্গে আমার নিবিড় সম্পর্ক কতটুকু গ্রহণযোগ্য।'   

প্রয়াত মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে খোন্দকার আখতার হামিদ ডাবলু বলেন, 'প্রবীণদের পর নবীন দের একটা সমন্বয় থাকতে হবে। প্রবীণরা আমাদের উপদেশ দেবেন, সেভাবেই আমরা কাজ করে যাবো।' 

এদিকে, বিএনপি বলছে, যাচাই বাছাই করেই প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, 'এসব কথা গ্রহণযোগ্য হবে না। জনগনের কাছে যারা গ্রহনযোগ্য তাদেরকেই মনোনয়ন দিতে হবে। কারণ আমরা নির্বাচন করছি জয়ী হওয়ার জন্য।' 

নির্বাচনী বৈতরনী পার হতে সব বিভাজন ভুলে সবাইকে একসাথে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন তারা।

আরও পড়ুন

বারভিডা কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি না থাকায় ক্ষোভ

বাংলাদেশ রিকন্ডিশন্ড ভেহিক্যালস ইমপোর্টার্স অ্যান্ড ডিলারস অ্যাসোসিয়েশন-বারভিডা'র কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি না থাকায়...

প্রশ্নপত্রে পর্নো তারকার নাম: খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে

রাজধানীর রাককৃষ্ণ মিশন উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির বাংলা প্রথম পত্রের বহু নির্বাচনি প্রশ্নপত্রে (এমসিকিউ) দু'টি প্রশ্নের সম্ভাব্য উত্তরে দুই পর্নো তারকার নাম এস...

'আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা বেড়েছে'

টানা ক্ষমতায় থেকে উন্নয়ন করার কারণেই আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা বেড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শুক্রবার, রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ...

'বিএনপি সংসদে যাবে না'

বিএনপি সংসদে যাবে না, দলের নীতিনির্ধারণী ফোরামে সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। শুক্রবার দুপুরে, সুপ্রিম কোর্ট...