DBC News
স্বাধীনতা কাপের চ্যাম্পিয়ন নবাগত বসুন্ধরা কিংস

স্বাধীনতা কাপের চ্যাম্পিয়ন নবাগত বসুন্ধরা কিংস

ঐতিহ্যের সঙ্গে টেক্কা দিয়ে স্বাধীনতা কাপে নবীনের জয়। শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রকে দুই এক গোলে হারিয়ে স্বাধীনতা কাপের ইতিহাসে প্রথমবার শিরোপা জিতলো বসুন্ধরা কিংস। ম্যাচের শুরুতেই লিড নেয় নবাগতরা। তবে, প্রথমার্ধে গোল শোধ করে ম্যাচে ফেরে রাসেল ক্রীড়া চক্র।

রেগুলেশন টাইমে আর গোল না হলেও অতিরিক্ত সময়ে হয় ফাইনালের নিষ্পত্তি। আর সেখানেই শেখ রাসেলকে দ্বিতীয় শিরোপা থেকে বঞ্চিত করে একই মালিকের নতুন দল বসুন্ধরা কিংস।

ড্যানিয়েল কলিনড্রেস বসুন্ধরা কিংসেরর ম্যাজিক ম্যান। কিন্তু স্বাধীনতা কাপের ফাইনালে দেখাতে পারেননি তেমন কোন চমক। যদিও নিজেই বল বাগিয়েছেন বেশ কয়েকবার কিন্তু তা শেখ রাসেলের জালে জড়াতে পারেননি।

কলিনড্রেসের জায়গায় এদিন প্রথম গোল পান মারকোস সিলভা। ১৬ মিনিটে পেনাল্টি এরিয়ার বেশ খানেকটা বাইরে থেকে নেয়া বাঁ পায়ের কিকে করেন নান্দনিক এক গোল। এতে ১-০ গোলে লিড নেয় নবাগতরা।

গোল পরিশোধে মরিয়া হয়ে ওঠে শেখ রাসেল'র খেলোয়াড়া। এ্যালেক্স রাফায়েল আর বিপলু পরপর নিয়েছেন কয়েকটা জোড়াল কিক। কিন্তু, তাতে হয়নি লক্ষ্যভেদ। প্রতিহত করেছেন গোলরক্ষক জিকো। প্রথমার্ধের শেষ মুহুর্তে সফল হন শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের খেলোয়াড় রাফায়েল। স্কোর বোর্ডে ১-১ গোলে সমতায় থেকেই শেষ হয় প্রথমার্ধ।

এরপর দ্বিতীয়ার্ধে দারুণ টিম স্প্রিট দেখা গেছে শেখ রাসেলের। অবশ্য বসুন্ধরাও থেমে ছিলো না। সমানে সমান আক্রমণ সানিয়েছে দু'দলই। কিন্তু সমতায় থেকেই শেষ হয় নির্ধারিত সময়ের খেলা।

অতিরিক্ত ৩০ মিনিটেও গোলের চেষ্টায় কমতি রাখেনি কোনও দলই। পরে, মাত্র ৫ মিনিটের মাথায় গ্যালারি মাতানো শর্টে গোল করেন বসুন্ধরার ফরওয়ার্ড মতিন মিয়া।

ফলে, প্রথমবারের মত স্বাধীনতা কাপের ফাইনালে উঠেই শিরোপা জয়ের সাধ পূরণ করেছে নবগত বসুন্ধরা কিংস।