DBC News
'নবম ওয়েজ বোর্ডে থাকছে টেলিভিশন'

'নবম ওয়েজ বোর্ডে থাকছে টেলিভিশন'

নবম ওয়েজ বোর্ডে টেলিভিশন চ্যানেলগুলোকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। সেই সঙ্গে, এটি দ্রুত বাস্তবায়ন করা হবে বলেও জানান তথ্যমন্ত্রী।

আজ শুক্রবার সকালে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে সম্প্রচার সাংবাদিক কেন্দ্রের প্রথম সম্মেলনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে একথা জানান তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, 'টেলিভিশনের জন্য আলাদা সম্প্রচার নীতিমালা ও আইন করা হচ্ছে। গণমাধ্যমের উন্নয়নে কাজ করতে সাংবাদিকদের সহযোগিতা করার আহ্বান জানান তিনি।

বিদেশি চ্যানেল সম্প্রচার অপরাধ না হলেও, বিদেশি চ্যানেলের বিজ্ঞাপন প্রচারে আইনি বাধা রয়েছে বলে জানান তথ্যমন্ত্রী।

সম্মেলনের উদ্বোধন করে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, সম্প্রচারের সাথে জড়িত সাংবাদিকরা এই প্ল্যাটফর্ম থেকে তাদের লক্ষ্য বাস্তবায়ন করবে। সেইসঙ্গে যে কোনও সমস্যা সমাধানে এই সংগঠন কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারবে বলে আশা করেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।

সংবাদপত্র ও বার্তা সংস্থার কর্মীদের জন্য নতুন বেতন কাঠামো নির্ধারণের জন্য গত বছরের ২৯শে জানুয়ারি নবম মজুরি বোর্ড গঠন করা হয়। ১৩ সদস্যের এই বোর্ডের চেয়ারম্যান সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি মো. নিজামুল হক। এছাড়া সংবাদপত্র প্রতিষ্ঠানের মালিকপক্ষ এবং সাংবাদিক ও সংবাদপত্র কর্মচারী বা শ্রমিকদের প্রতিনিধিত্বকারী সমসংখ্যক প্রতিনিধিও রয়েছেন ওয়েজ বোর্ডে।

গত বছরের ১লা সেপ্টেম্বর নবম বেতন কাঠামো চূড়ান্ত করার আগে প্রতি মাসের মূল বেতনের উপর ৪৫ শতাংশ হারে মহার্ঘ ভাতা ঘোষণা করে সরকার। যা ২০১৮ সালের ১লা মার্চ থেকে কার্যকর ধরা হয়। এ মহার্ঘ ভাতা বোর্ডের নির্ধারিত সামগ্রিক বেতন কাঠামোর সঙ্গে সমন্বয় করা হবে।

ওয়েজ বোর্ডে প্রথম তিনটি গ্রেডে ৮০ শতাংশ ও শেষের দিকে তিনটি গ্রেডে সর্বোচ্চ ৮৫ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির সুপারিশ করা হয়। নতুন ওয়েজ বোর্ডে সাংবাদিক, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা মূল বেতনের ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ বাড়ি ভাড়া পাবেন। সেই সঙ্গে ২০ শতাংশ বৈশাখী ভাতাও পাবেন।