DBC News
আমানত কমায় তারল্য সংকটে ব্যাংক

আমানত কমায় তারল্য সংকটে ব্যাংক

আমানত কমায় নতুন বছরের শুরুতেও তারল্য সংকটে রয়েছে বেসরকারি ব্যাংকগুলো। এদিকে, আমানত সংগ্রহের প্রতিযোগিতায় পড়ে কার্যকর করা যাচ্ছে না ৬ ও ৯ শতাংশ সুদহার। সঞ্চয়পত্রের সুদ হার কমানো ও খেলাপি ঋণ আদায়ে উদ্যোগী না হলে এ পরিস্থিতির উন্নয়ন হবে না বলে মত ব্যাংকিং বিশ্লেষকদের।

আমানত সংগ্রহের প্রতিযোগিতার কারণে বছরের শুরুতেই মেয়াদি আমানতের সুদের হার ১০ শতাংশে পৌছেছে। আমানতের সুদহার বাড়ায় বেড়েছে ঋণের সুদহারও। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে আমানত ও ঋণের সুদহার যথাক্রমে ৬ ও ৯ শতাংশে বেঁধে দেয়া হলেও তা কার্যকর করছে না অনেক ব্যাংক।

অগ্রণী ব্যাংক ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ শামস-উল ইসলাম জানান, ‘যেটা হচ্ছে না, সেটা আমি মনে করি যে কিছু বেসরকারি ব্যাংকিং-এ কিছু হচ্ছে বা হচ্ছে না। আমাদের ক্ষতি হচ্ছে, অনেক আমানত চলে যাচ্ছে কিংবা আমাদের ইনকাম স্কিম কমে যাচ্ছে। কিন্তু আমি মনে করি এটার একটা পজিটিভ ইম্প্যাক্ট আছে অর্থনীতিতে।’

ট্রাস্ট ব্যাংক ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফারুক মঈনউদ্দীন জানান, ‘তারল্য সংকট কেটেছে এটা কোনোভাবেই বলা যাবে না, বরং গত বছরের তুলনায় তারল্য সংকট আরও বাড়তেও পারে। ২০১৮ সালের পরে যখন একটি নির্বাচিত সরকার ক্ষমতায় আসে, তখন যারা বিনিয়োগকারি, তখন তাদের ওয়েট এন্ড সি-এর পর্বটা শেষ হয়, তখন তারা নতুন বিনিয়োগে যায়। যখনই তারা নতুন বিনিয়োগে যাবে তখনই তারল্যের ওপর চাপ পরবেই।’

বর্তমানে সঞ্চয়পত্রের সুদহারের তুলনায় আমানতের সুদহার প্রায় অর্ধেক। ফলে মানুষ ব্যাংকে টাকা না রেখে সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ বাড়িয়েছে। ২০১৮ সালের অক্টোবর শেষে সঞ্চয়পত্র বিক্রি থেকে সরকারের ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ৫৫ হাজার ৫৯৫ কোটি টাকা।

ট্রাস্ট ব্যাংক ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফারুক মঈনউদ্দীন আরও জানান, ‘মধ্যবিত্ত কিংবা অবসরপ্রাপ্ত ব্যক্তি, তারা কিন্তু ব্যাংকের সুদের চাইতে সঞ্চয়পত্রের সুদ যেহেতু বেশি তার দিকে ঝুকে পড়তে পারে। সুতরাং এটা একটা ব্যাপার।’

বিআইবিএম অধ্যাপক আহসান হাবীব, ‘আমানত হার হয়তো সবসময় ইনফ্লেশনের থেকে একটু বেশি না হলে মানুষের মধ্যে ইনসেন্টিভ থাকে না। আমানতের ক্ষেত্রে সমস্যাটা সবাই এখন উপলব্ধি করছে যার একটা সমাধানের দিকে আমাদের যেতে হবে। কারণ হলো এটার সাথে মানুষ তুলনা করে সঞ্চয়পত্রগুলো।’

২০১৯ সাল শুরু হয়েছে আমানতের সংকট দিয়েই। বন্ড মার্কেটের সম্প্রসারণ, বিদেশী বিনিয়োগ বৃদ্ধি ও সঞ্চয়পত্রের সুদহার না কমালে তারল্য পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে না বলেই মনে করেন এই বিশ্লেষক।

ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগের লাগাম টানতে এডি রেশিও কিছুটা কমিয়ে আনে বাংলাদেশ ব্যাংক। সর্বশেষ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, ২০১৯ সালের ৩১ মার্চের মধ্যে ব্যাংকগুলোর এডি রেশিও সমন্বয় করার কথা রয়েছে।

আরও পড়ুন

ড্রিমলাইনার বোয়িং-৭৮৭ ‘গাঙচিল’ যোগ হলো বিমানে

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের যোগ হলো তৃতীয় ড্রিমলাইনার বোয়িং-৭৮৭ ‘গাঙচিল’। বৃহস্পতিবার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ড্রিমলাইনার বোয়িং সেভেন...

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন চেষ্টা অব্যাহত রাখতে জাতিসংঘের আহ্বান

বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের স্বেচ্ছায় মিয়ানমারের ফিরে যাওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। বৃহস্পতিবার, জাতিসংঘের শরনার্থী বিষয়ক সংস্থ...

আন্তর্জাতিক বাজারের তুলনায় দেশের বাজারে স্বর্ণের দাম চড়া

আন্তর্জাতিক বাজারের তুলনায় দেশের বাজারে স্বর্ণের দাম বেশি হওয়ায় স্বর্ণের বিক্রি কমেছে। আর, দফায় দফায় দাম বাড়ায় স্বর্ণের বিক্রি একেবারেই কমে গেছে রাজধানীর বাজারে...

ব্যাংকে অপ্রয়োজনীয় ব্যয় কমানোর নির্দেশ

পরিচালন ব্যয় কমিয়ে আনতে আবারো ব্যাংকগুলোকে অপ্রয়োজনীয় ব্যয় বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।এর অংশ হিসেবে জমি কেনা, অফিস ভাড়া, সাজসজ্জা এবং পরিচালনা পর্...