DBC News
ট্রাকে বিশেষ কৌশলে মাদক সরবরাহ

ট্রাকে বিশেষ কৌশলে মাদক সরবরাহ

মাদকের বিরুদ্ধে অব্যাহত অভিযানের পরও, কৌশলে মাদক সরবরাহ থেমে নেই। পাকস্থলি ভাড়া, শিশুদের ব্যবহার এমন কি সবজির ভেতরেও প্রতিনিয়ত পাচার হচ্ছে মাদক। রাজধানীতে এমনি বিশেষ কৌশলে আসা একটি ট্রাকের পাটাতন থেকে প্রায় কোটি টাকার গাঁজা জব্দ করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

মাদক পাচারে পাচারকারীরা নিচ্ছে নিত্য নতুন কৌশল। শুকনো মরিচ, জুতা, ইলিশ মাছ, কচ্ছপ, পায়ুপথ এমন কি পাকস্থলি ভাড়া করে ঝুঁকিপূর্ণভাবে শিশুদের দিয়ে নিয়ে আসা হচ্ছে মাদক। এসব কৌশলে হতবাক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীও। অভিযান চলছে তবুও থামছে না মাদক সন্ত্রাসীদের দৌরাত্ম।

রবিবার, এমনই কৌশলে ট্রাকে করে আনা একটি মাদকের চালান জব্দ করা হয় ঢাকা থেকে। প্রথম দেখায় বুঝতে কষ্ট হবে যে কারও তবে, ট্রাকের পাটাতন খুলতেই দেখা মেলে থরেথরে সাজানো গাঁজার স্তুপ। বিশেষভাবে বানানো এই ট্রাকে করে মাদকের চালানটি এসেছে ভারত থেকে। যদিও ট্রাকের চালক বলেন, এই বিষয়ে কিছুই জানতেন না তিনি।

ট্রাক চালক বলেন, ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়া সীমান্ত থেকে গাজীপুর পৌঁছিয়ে দিলে আমাকে ১৫ হাজার টাকা দেয়া হবে এতুটুকুই আমি জানি। গাড়ির ভেতরে কি আছে বা নেই সে সব কিছু আমি জানি না।’

এই ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে। গোয়েন্দারা বলছেন, সীমান্ত ফাঁকি দিয়ে এই চক্রটি বেশ কয়েকটি চালান নিয়ে এসেছে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায়।

ঢাকা মহানগর উত্তর গোয়েন্দা পুলিশের ডিসি মশিউর রহমান জানান, ‘এই গাঁজাগুলো কোনোটাই বাংলাদেশে উৎপাদিত না। এগুলো ত্রীপুরা, আসামের পাহাড়ের ঢালে উৎপাদন হওয়া গাঁজা। আমরা যেহেতু সতর্কতার সঙ্গে আমাদের কর্তব্য পালন করি, এজন্য আমাদের কাছে নানারকম খবর আসে। সে কারণেই এইরকম বড় চালানগুলো ধরা পরে। আমরা আশাবাদী আমাদের তৎপড়তা অব্যাহত থাকলে, এদেরকে আমরা একসময় নিশ্চিহ্ন করতে পারবো এবং নি:স্ব করে দিতে পারবো।’

চক্রটির মূল হোতা ভারতে অবস্থান করছে জানিয়ে তিনি বলেন তাকেও ধরার চেষ্টা চলছে। 

আরও পড়ুন

ঈদে রাজধানীর ৬ স্থান থেকে বিক্রি হবে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট

ঈদে যাত্রীদের ভোগান্তি কমাতে রেলের টিকিট রাজধানীর কমলাপুর স্টেশন ছাড়াও মিরপুরের পুলিশ কনভেনশন সেন্টার, ফুলবাড়িয়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি, বিমানবন্দর স্টেশন...

সিডিএ’র নতুন চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ

চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ-সিডিএ’র চেয়ারম্যান নিয়োগ পেয়েছেন  জহিরুল আলম দোভাষ। বুধবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব আলিয়া মেহের স্বাক্ষরিত এক আদেশে...

'আগে ব্যবস্থা নিলে নুসরাত হত্যা এড়ানো যেত'

মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটি ও পুলিশ আগে থেকে ব্যবস্থা নিলে নুসরাত জাহান রাফির হত্যা এড়ানো যেত বলে জানিয়েছেন পুলিশের তদন্ত কমিটির প্রধান ডিআইজি এসএম রুহুল আমিন। এদ...

নুসরাত হত্যা: রাজনৈতিক পরিচয় দেখা হবে না

নুসরাত হত্যার ঘটনায় জড়িত কারো রাজনৈতিক পরিচয় দেখা হবে না বলে জানিয়েছে, তদন্তের দায়িত্বে থাকা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন-পিবিআই। সংস্থাটির প্রধান জানান, ঘটনায়...