DBC News
ডাকসু: পুনর্নির্বাচনের দাবিতে অনশন চলছেই

ডাকসু: পুনর্নির্বাচনের দাবিতে অনশন চলছেই

টানা তৃতীয় দিনের মতো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে অনশন করছেন কয়েকজন শিক্ষার্থী। তাদের দাবি ডাকসুর পুনর্নির্বাচন। একই দাবি জানিয়েছেন ডাকসুর সাবেক ভিপি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম। এদিকে, প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে গণভবনে যাওয়া নিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মতামতকে প্রাধান্য দেবেন বলে জানিয়েছেন ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি।

অনিয়মের অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ-ডাকসু ও হল সংসদের সদ্য সমাপ্ত নির্বাচন বাতিল করে পুনর্নির্বাচনের দাবিতে অনশন করছেন কয়েকজন শিক্ষার্থী।

শুক্রবার  সকালে অনশনকারীদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন ডাকসুর সাবেক ভিপি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন অনশনকারীদের সাথে অমানবিক আচরণ করছে বলে এসময় অভিযোগ করেন তিনি। মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, 'যদি তারা বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ হিসেবে নৈতিকভাবে পরিচয়  দিতে চায়, তবে তাদের সন্তানতুল্য ছাত্ররা যে অনশনে বসেছে, এতে তাদের দাবিদাবা মেনে নেয়ার প্রশ্ন তো আছেই, যদি তা নাও মানে তবে শিক্ষার্থীদের ভালোমন্দ দেখার দায়িত্ব বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষের আছে। তবে কতৃপক্ষে তা না করে অমানবিক আচরণ করছে।'   

এদিকে, দুপরে, নবনির্বাচিত ভিপি আসেন অনশনকারীদের সাথে দেখা করতে। পরে, সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নুরুল হক বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে গণভবনে যেতে চান তিনি। তবে, শিক্ষার্থীদের মতামতকে প্রাধান্য দেবেন তিনি।  

নুরুল হক বলেন, 'যেহেতু প্রধানমন্ত্রী ডেকেছেন,  আমি পজেটিভভাবে যাওয়ার পক্ষে। অন্তত আমাদের দাবিগুলো তার সামনে তুলে ধরবো। তবে আমি আমার আন্দোলনকারি ভাইবোনদের সঙ্গে কথা বলে এবং নির্বাচনে অংশ নেয়া প্যানেলের সঙ্গে কথা বলে ফাইনাল ডিসিশন নেবো। কারণ তারা যদি সেটিতে রাজি হয় তাহলে আমি যেতে পারবো না। তবে আশা করি তারা রাজি হবে।    

গত ১১ তারিখে ডাকসু নির্বাচনে ২৫ পদের মধ্যে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ভিপি প্রার্থী নুরুল হক এবং সমাজসেবা সম্পাদক পদে নির্বাচিত হন আখতার হোসেন। এছাড়া ২৩টি পদেই ছাত্রলীগের প্রার্থীরা নির্বাচিত হন।