DBC News
দ্বিতীয় ধাপে উপজেলা নির্বাচনের প্রস্তুতি

দ্বিতীয় ধাপে উপজেলা নির্বাচনের প্রস্তুতি

আগামী ১৮ই মার্চ দ্বিতীয় ধাপে নওগাঁর ১১টি ও গাইবান্ধায় ৫টি উপজেলাসহ ১২৮টি উপজেলায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে উপজেলা নির্বাচন। এদিকে, আইনি জটিলতায় গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। তবে অন্য উপজেলাগুলোতে মনোনয়ন জমা দেয়ার পর থেকেই প্রচারণায় নেমেছে প্রার্থীরা। আর ভোটাররা বলছেন যোগ্য প্রার্থীকে বেছে নিতে চান তারা।

নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন পাঁচজন। ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন আরও আটজন। মনোনয়ন পত্র জমা দেয়ার পর থেকেই নির্বাচনি প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা।  

ধামইরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী মোহাম্মদ আজহার আলী বলেন, 'আমি শতভাগ আশাবাদী এই নির্বাচনে আমি জয়লাভ করবো। এই এলাকাকে আমি একটি সুখী ও সমৃদ্ধিশালী হিসেবে গড়ে তুলতে সচেষ্ট থাকবো।'

এই উপজেলার স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু নাসের মোহাম্মদ আফজাল হোসেন বলেন, এই এলাকাটি একটি অবহেলিত এলাকা। তাই এই এলাকাকে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে একটি মডেল হিসেবে গড়ে তুলতেই আমি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করছি।'

ভোটারদের আশা, সুষ্ঠু হবে নির্বাচন আর জয়ী হবেন যোগ্য প্রার্থী। এদিকে, শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ হবে বলে আশা করছেন নির্বাচন কর্মকর্তা।

ধামইরহাট উপজেলা সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা গণপতি রায় জানান, 'আমি আশা করছি এই উপজেলায় অত্যন্ত সুন্দর, সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন হবে। ভোটাররাও নির্বিগ্নে তাদের ভোটাধীকার প্রয়োগ করতে পারবে।'

এ উপজেলায় মোট ভোটার ১ লাখ ৪২ হাজার ৬শ ৯২ জন।

অন্যদিকে, গাইবান্ধার পলাশবাড়ি ও সাদুল্যাপুরসহ পাঁচটি উপজেলায় জোরেশোরে চলছে প্রার্থীদের নির্বাচনি প্রস্তুতি। এরমধ্যে পলাশবাড়িতে চেয়ারম্যান পদে লড়বেন ৩ জন। এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৮ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

পলাশবাড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী একেএম মোকসেদ চৌধুরী বিদ্যুৎ বলেন, 'উন্নয়নের ধারাবাহিকতা ঠিক রাখতেই আমি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি। আমি জয়ী হলে এই উপজেলাকে একটি মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলবো।'

অন্যদিকে সাদুল্যাপুরে চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ৪ জন। ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন মোট ৯ জন প্রার্থী।

সাদুল্যাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী সাহরিয়া খান বিপ্লব বলেন, 'স্বাধীনতার ৪৭ বছর পরে বিগত ৫ বছরে এই উপজেলায় যে উন্নয়ন  হয়েছে, তার ধারাবাহিকতা রাখতেই জনগণ আমাকে ভোট দিবে।'

এছাড়া স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী আকতার বাণু লাকী বলেন, এই উপজেলায় যদি অবাধ ও সুষ্ঠু ভোট হয়, জনগণ যদি তাদের ভোটাধীকার প্রয়োগ করতে পারে।তাহলে আমি বিপুল ভোটে জয়লাভ করবো।'

সাদুল্যাপুর উপজেলায় মোট ভোটার ২ লাখ ২৩ হাজার ৬৯৩ জন এবং পলাশবাড়ি উপজেলায় মোট ভোটার ১ লাখ  ৮৮ হাজার ১৪৮ জন।

আরও পড়ুন

মাদারীপুরে জেলা ছাত্রলীগ নেতার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

মাদারীপুরে একটি নির্মাণাধীন ভবন থেকে জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি লিমন মজুমদারের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি শহরের সবুজবাগ এলাকার বাবুল মজুমদার...

তৃতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনে পাওয়া সবশেষ ফলাফল

তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে এখন পর্যন্ত চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের জয় পেয়েছে ৪৭ জন।  আর অন্যরা জয় পেয়েছে ৩৫টি উপজেলায়।এই ধাপে চেয়ারম্যান পদে বিনা প...

গাইবান্ধার ৯ রাজাকারের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ

মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে গাইবান্ধার ৯ রাজাকারের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা।  রাজধানীর...

মাদারীপুরে জেলা ছাত্রলীগ নেতার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

মাদারীপুরে একটি নির্মাণাধীন ভবন থেকে জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি লিমন মজুমদারের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি শহরের সবুজবাগ এলাকার বাবুল মজুমদার...