DBC News
ক্রাইস্টচার্চ হামলায় বিশ্বজুড়ে শোক

ক্রাইস্টচার্চ হামলায় বিশ্বজুড়ে শোক

ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় বিশ্বজুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। নিউজিল্যান্ডজুড়ে মসজিদগুলোতে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জ্যাসিন্ডা আরডের্ন। এরই মধ্যে নিহতদের শ্রদ্ধা জানাতে মসজিদের সামনে জড়ো হন স্থানীয়রা।

আল নূর মসজিদের সামনের রাস্তায় একটি অস্থায়ী স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধা জানাতে শনিবার দুপুর থেকেই জড়ো হতে থাকেন স্থানীয়রা। শুধু মুসলিমরাই নন, সহমর্মিতা জানাতে যোগ দেন স্থানীয় শেতাঙ্গ অধিবাসীরাও। ফুল আর প্রার্থণা সঙ্গীত দিয়ে স্মরণ করেন ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের।

মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রতি সংহতি জানিয়ে বেলুন ও বিভিন্ন ব্যানার নিয়েও হাজির হন অনেকে। সবার কন্ঠেই এক সুর, সন্ত্রাসের কাছে কেউ হারবে না।

হামলা থেকে বেঁচে ফিরে আসা এক ক্রাইস্টচার্চবাসী ভয়াবহ সেই অভিজ্ঞতার কথা জানিয়ে বলেন, রাস্তা থেকে মসজিদ পর্যন্ত শুধুই গুলির আওয়াজ শোনা যাচ্ছিল। তাড়াতাড়ি নামাজ শেষ করার চেষ্টা করছিলাম। কিন্তু পরে আর শেষ করতে পারিনি। তার আগেই বেশ কয়েকজনকে দেখলাম হামলাকারীর গুলিতে প্রাণ হারাতে।এটা আমাদের সবার জন্যই ভীষণ দুঃখজনক। কঠিন সময় পার করছি আমরা। এখনো অনেকে পরিবারের সদস্যদের খোঁজ পাচ্ছে না।'

কিভাবে এত অস্ত্র ব্রেন্টন নিয়ে আসলো, সে বিষয়ে তদন্ত করা হবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী জ্যাসিন্ডা আরডের্ন নিউজিল্যান্ডবাসীর সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেন। এর আগে তিনি জানান, নিউজিল্যান্ডবাসীর সবার মতই একই অনুভূতি হচ্ছে আমার। নিহতদের পরিবারের প্রতি আমি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি। তবে যতদিন পর্যন্ত হুমকি মনে হয় ততদিন পর্যন্ত দেশের সব মসজিদে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে। ভবিষ্যতে তার দেশের বন্দুক আইন আরও কঠোর করা হবে।

এছাড়া, স্থানীয় পুলিশের সাহসিকতার প্রশংসাও করেন প্রধানমন্ত্রী জ্যাসিন্ডা।