DBC News
কালরাত স্মরণে ১ মিনিট অন্ধকার থাকবে দেশ

কালরাত স্মরণে ১ মিনিট অন্ধকার থাকবে দেশ

৭১-এর ২৫শে মার্চের কালরাত স্মরণে আজ রাত ৯টায় ১ মিনিটের জন্য বন্ধ রাখা হবে সব আলো। প্রতীকী 'ব্ল্যাক আউটের' মধ্যে দিয়ে দেশবাসী স্মরণ করবেন ১৯৭১-এর এই দিনে গণহত্যায় নিহত শহীদদের।

জরুরি স্থাপনা ও চলমান যানবাহন ছাড়া সারাদেশে প্রতীকী ব্ল্যাক আউট কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হবে।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় আয়োজন করে এই কর্মসূচির। এ প্রসঙ্গে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ২৫শে মার্চ কালরাত বাঙালি জাতির জীবনে এক বিভীষিকা। সেই রাতটিকে স্মরণ করতে, সোমবার রাত ৯টা থেকে ৯টা ১ মিনিট পর্যন্ত ঢাকাসহ সারাদেশে 'ব্ল্যাক আউট' কর্মসূচি পালন করা হবে। এ বিষয়ে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

১৯৭১-মহান মুক্তিযুদ্ধের ঠিক আগের রাত ২৫শে মার্চ ছিল বাঙালির জীবনে এক দুঃস্বপ্নের ‘কালরাত’। ২৫শে মার্চ জেনারেল ইয়াহিয়া খানের রক্তপিপাসু পাকিস্তানি সেনাবাহিনী ইতিহাসের অন্যতম বর্বরোচিত ও কাপুরষোচিত গণহত্যা মেতে উঠে। অপরেশন সার্চ লাইট নামে সেই গণহত্যায় নিহত হন অসংখ্য নিরীহ বাঙালি। নিঃসন্দেহে এই দিনটি আমাদের জাতীয় জীবনে অন্যতম একটি বেদনাময় দিন। বিভিষীকাময় ২৫শে মার্চের রাতটি ‘কালরাত’ হিসেবে চিহ্নিত হয়ে আছে জাতীয় জীবনে। 

এদিকে, ২৫শে মার্চ কালরাত স্মরণে রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়।  পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ও তাদের দোসরদের চক্রান্তে নিহত জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের স্মরণ করতে সন্ধ্যায় মোমবাতি প্রজ্জ্বলন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে প্রদীয় প্রজ্জ্বলন কর্মসূচি পালন করে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট। আগারগাঁওয়ে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের শিখা চির অম্লানে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়।

এছাড়া, পুরানা পল্টনের মুক্তি ভবন থেকে শিখা চিরন্তন পর্যন্ত আলোর মিছিল বের করা হয়। এ সময় শহীদদের সম্মান জানাতে উপস্থিত হন মুক্তিযোদ্ধা, শিক্ষার্থী, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।