DBC News
বিশ্বকাপ স্কোয়াডে কি থাকছেন ইমরুল?

বিশ্বকাপ স্কোয়াডে কি থাকছেন ইমরুল?

টাইগারদের বিশ্বকাপ স্কোয়াড নিয়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা। দলের ১৫ জনের স্কোয়াডে কারা থাকছেন? বিশ্বকাপ স্কোয়াড নিয়ে ডিবিসির ধারাবাহিক প্রতিবেদনে আজ থাকছে তিন ওপেনার লিটন-সৌম্য-ইমরুলের কথা। নির্বাচক আর ক্যাপ্টেনের নেক নজরে লিটন ও সৌম্য। তবে, বিশ্বকাপ দলে নাও থাকতে পারেন ইমরুল কায়েস।

মজবুত ফাউন্ডেশন যেমন বড় ইমারত গড়ার পূর্বশর্ত। তেমই ওপেনিং পার্টনারশিপ ক্রিকেটে বড় ইনিংস গড়ার গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। আর সেই ওপেনিং স্লটেই লেজে গোবরে টিম টাইগার্স। দেশ সেরা ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল এক প্রান্তে আস্থায় অবিচল। অন্য প্রান্তে, অনেকেইতো এলো গেলো? বিশ্বকাপের আগে তাই কোটি টাকার প্রশ্ন- তামিমের সঙ্গে থেকে রানের ভিত্তি গড়ে তুলবেন কে?

সব শেষ নিউজিল্যান্ড সফরের তিন ওয়ানডেতেই ওপেন করেছেন লিটন দাস। ছিলেন দারুণ ধারাবাহিক। প্রতি ম্যাচে এক রান করে তিন ম্যাচে তার মোট রান তিন। গেল বছর এশিয়া কাপ ফাইনালে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি। পরের ৯ ম্যাচে নেই কোনও সেঞ্চুরি নেই। আর ফিফটিও মাত্র একটা। তাও আবার চট্টগ্রামে। তবে, লিটন দাসের খেলার ধরনে ম্যাচ উইনিং ইমপ্যাক্ট খুঁজে পান ক্যাপ্টেন আর নির্বাচকরা। এছাড়াও বিবেচনায় আছে বাম-ডানের কম্বিনেশন। আর তাই বিশ্বকাপে তামিমের ওপেনিং পার্টনার হিসেবে সব চেয়ে আগে লিটন দাসের নাম।

নিউজিল্যান্ডে তিন ওয়ানডেই তিনে ব্যাট করেছেন সৌম্য সরকার। প্রথম দুই ম্যাচে ভালো শুরু করেও ইনিংস লম্বা করতে পারেননি। ফুট ওয়ার্কের সেই পুরনো রোগে এখনো ভুগছেন এই টাইগার বিগ হিটার। নিজেদের ঘরে উইন্ডিজ সিরিজের প্রথম দুই ওয়ানডেতে ব্যাট করেছেন সাত আর ছয়ে। ডাহা ফ্লপ। তবে, শেষ ম্যাচে তিনে নেমেই ফিরেছেন চেনা চেহারায়। তার আগে, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি। সাকিবের ইনজুরির কারণে তিন নম্বরে ব্যাট করেন সৌম্য। আসছে বিশ্বকাপে সৌম্য খেলবেন কোথায়?

এখন আরেক প্রশ্ন- বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পাবেনতো ইমরুল কায়েস? ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুই সেঞ্চুরি এক ফিফটি। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা সেই ইমরুলের ব্যাটই উইন্ডিজ সিরিজে আলগা। এরপরই তাকে নিয়ে বিতর্ক ওঠায় নিউজিল্যান্ড সফর থেকে বাদ পরেন ইমরুল কায়েস। লিটন ও সৌম্যর চেয়ে তামিমের সঙ্গে ইমরুলের রসায়ন বেশ ভালোই জমে। স্লো উইকেটে দারুণ ব্যাট করেন ইমরুল। তবে, ফার্স্ট আর বাউন্সি উইকেটে নড়বড়ে পারফরম্যান্স। আর তাই ইংলিশ কান্ডিশনে টিম ম্যানেজমেন্টের ভরসায় নেই ইমরুল।