DBC News
দুই সপ্তাহে আয় ১৯ হাজার কোটি টাকারও বেশি

দুই সপ্তাহে আয় ১৯ হাজার কোটি টাকারও বেশি

‘অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম’ বদলে দেবে হলিউডের সব হিসাব-নিকাশ আগে থেকেই এমন ধারণা করা হয়েছিলো। ছবিটি মুক্তির পর হয়েছেও তাই। গত ২২শে এপ্রিল বিশ্বজুড়ে ছবিটি মুক্তির মাত্র দুই সপ্তাহের মাথায় আয় করেছে ২২৭ কোটি ডলার। যা টাকার অঙ্কে প্রায় ১৯ হাজার কোটিরও বেশি। এটিই এখন পর্যন্ত বিশ্বে সর্বোচ্চ আয় করা সুপারহিরো ছবি। আর বিশ্ব চলচ্চিত্র ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আয়ের ছবি।

মার্ভেল কমিকসের সুপারহিরো দল অ্যাভেঞ্জার্সের উপর ভিত্তি করে নির্মিত আমেরিকান সুপারহিরো চলচ্চিত্র 'অ্যাভেঞ্জার্স: এন্ডগেম' শুধু মার্কিন মুল্লুকেই নয়, চীন ভারতের বক্স অফিস কাঁপিয়ে এখন ঝড় তুলেছে বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহেও। হলিউডের এই ছবিটি দেখতে দর্শকদের মধ্যে উত্তেজনা ক্রমাগত বাড়ছে।

‘এন্ডগেম’ ঢাকার স্টার সিনেপ্লেক্স, সীমান্ত সম্ভার, ব্লকবাস্টার সিনেমাজ  ও চট্টগ্রামের সিলভার স্ক্রিনে চলছে। মুক্তির ১০ দিন পর্যন্ত বাংলাদেশে প্রায় ছয় কোটি টাকা ব্যবসা করেছে ছবিটি। দেশি-বিদেশি মিলিয়ে সিনেপ্লেক্সগুলোতে এটাই কোনো ছবির সর্বোচ্চ মুনাফা। ৩০ এপ্রিল প্রথম পাঁচ দিনের আয় হিসাব করে দেখা যায়, তিন কোটিরও বেশি মুনাফা করেছে ছবিটি। চারটি প্রেক্ষাগৃহের শো এবং টিকিটের মূল্য হিসাব করে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

‘অ্যাভেঞ্জার্স’র ছবি ‘ইনফিনিটি ওয়ার’র প্রথম সপ্তাহের আয় ছিলো ৬৪১ মিলিয়ন ডলার। সে তুলনায় সপ্তাহের প্রথম দুই দিনেই এন্ডগেমের আয় ছাড়িয়ে গিয়েছে ইনফিনিটি ওয়ারের আয়ের পরিসংখ্যানকেও।

‘এন্ডগেম’ মাত্র দুই সপ্তাহের ভেতরেই ‘টাইটানিক’, ‘স্টার ওয়ারস: দ্য ফোর্স অ্যাওয়েকেনস’ ও ‘অ্যাভেঞ্জার্স: ইনফিনিটি ওয়ার’ ছবির বক্স অফিসের রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। এখন এই ছবির সামনে আছে শুধু ‘অ্যাভাটার’। ২০০৯ সালের ১০ ডিসেম্বর জেমস ক্যামেরুন পরিচালিত এই ছবি বিশ্বজুড়ে আয় করেছে ২৩ হাজার ৯০৮ কোটি টাকা। সব দেখে-শুনে মনে হচ্ছেন, সর্বাধিক আয় করা ছবি হিসেবে ‘অ্যাভাটার’-এর দিন ফুরিয়ে আসছে।