DBC News
'ঘুষ নেয়ার দাবি পাগলের প্রলাপ'

'ঘুষ নেয়ার দাবি পাগলের প্রলাপ'

পুলিশের ডিআইজি মিজানুরের কাছ থেকে ঘুষ নেয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন দুদকের সাময়িক বরখাস্ত হওয়া পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছির। এ সময় ঘুষ নেয়ার দাবি পাগলের প্রলাপ বলে উল্লেখ করে বলেন, 'ট্র্যাপে ফেলার জন্যই ঘুষ নেয়ার নাটক।'  

মিজানুরের ৪ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদের খোঁজ পাওয়া গেছে উল্লেখ করে, তার বিরুদ্ধে মামলা করার সুপারিশ করা হয়েছে বলেও জানান এনামুল বাছির।  ডিবিসি নিউজকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে এসব জানিয়েছেন তিনি।

এর আগে ডিআইজি মিজানের কাছ থেকে ঘুষ নেয়ার অভিযোগে দুদক পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছিরকে সাময়িক বরখাস্ত করে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক। পুলিশের বরখাস্ত হওয়া ডিআইজি ঘুষ নেবার অভিযোগের তদন্তের স্বার্থে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ।

একই সঙ্গে, এনামুল বাছিরকে ডিআইজি মিজানের তদন্ত থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। তার স্থলে নতুন কাউকে দায়িত্ব দেয়া হবে বলেও জানান দুদক চেয়ারম্যান।

অবৈধ সম্পদের তদন্ত করতে গিয়ে দুদকের পরিচালক খন্দকার এনামুল বাসির কয়েক দফায় ৪০ লাখ টাকা ঘুষ নিয়েছেন বলে অভিযোগ করেন ডিআইজি মিজান। এ অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করে দুর্নীতি দমন কমিশন।

প্রায় দুই বছর আগে নারী কেলেঙ্কারির অভিযোগে ডিআইজি মিজানকে বরখাস্ত করে পুলিশ সদর দপ্তরে সংযুক্ত করা হয়। তদন্ত প্রতিবেদনে অভিযোগের সত্যতা মিললেও এখনো তার বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।