DBC News
৮'শ হাঁস হারানো কাশেমের পাশে ছাত্রলীগ

৮'শ হাঁস হারানো কাশেমের পাশে ছাত্রলীগ

নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলায় আবুল কাশেম (৬০) এর ৮০০ হাঁস মেরে ফেলার অভিযোগ ওঠার পর তার পাশে দাঁড়িয়েছে ছাত্রলীগ। আবুল কাশেমের অবস্থা বিবেচনা করে তার জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।  

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী তার ফেসবুক ওয়ালে জানিয়েছেন, 'নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার বলাইশিমুল ইউনিয়নের ছবিলা গ্রামের হতদরিদ্র শারীরিক প্রতিবন্ধী কাশেম ভাই এর জন্য ছাত্রলীগ পরিবারের পক্ষ থেকে তার বেঁচে থাকার অবলম্বন হিসেবে, কিছু হাঁস কিনে দেয়ার উদাত্ত আহবানে সংগঠনের সকল স্তরের নেতাকর্মীদের যে অভূতপূর্ব সাড়া পেয়েছি, তাতে আমি সত্যি আশান্বিত, আমরা এক হলে সব পারি! মানুষ মানুষের জন্য ; জীবন জীবনের জন্য।' এছাড়াও তিনি বিকাশ নম্বর এবং ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর উল্লেখ করেছেন, যেখানে যে কেউ চাইলে সাহায্য পাঠাতে পারবেন। 

একইসঙ্গে তিনি আরও লিখেছেন, 'কাশেম ভাইয়ের সাথে সরাসরি দেখা করে বা কথা বলে যেকেউ বিকাশ বা ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে তাকে হেল্প করতে পারেন।' 

এর আগে, নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলায় শত্রুতা করে বিষ দিয়ে ৮০০ হাঁস মেরে ফেলার অভিযোগ ওঠে। কেন্দুয়ার বলাইশিমুল ইউনিয়নের ছবিলা গ্রামে রবিবার এ ঘটনা ঘটে।

হাঁসগুলোর মালিক ওই গ্রামের আবুল কাশেম (৬০)। তিনি তার সংসার চালাতেন এসব হাঁসের দেয়া ডিম বিক্রি করে। আবুল কাশেম জানান, তাদের ১৭শ হাঁস হাওড়ের পরিত্যক্ত খাবার খেতে প্রতিদিনের মতো রবিবার সকালেও ছাড়া হয়েছিল। তখন নিজের বাড়ির খামার থেকে বেরিয়ে পাশেই অন্যের একটি পরিত্যক্ত ধান ক্ষেতে কিছুক্ষণ খাবার খেয়েছে। এখানে খাবার খাওয়ার কয়েক মিনিট পরেই হাঁসগুলো মরতে শুরু করে। ওই দিন দুপুর পর্যন্ত ৮০০ হাঁস মরেছে। মরে যাওয়া এসব হাঁসের বাজারমূল্য ছিল প্রায় আড়াইলাখ টাকা বলে জানান তিনি।