DBC News
এমপিপুত্রের কারণে মিন্নির পক্ষে আইনজীবী নেই

এমপিপুত্রের কারণে মিন্নির পক্ষে আইনজীবী নেই

বরগুনায় রিফাত হত্যা মামলায় স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির পক্ষে দাঁড়াননি কোনো আইনজীবী। মিন্নির বাবা বলেছেন, তিন আইনজীবীর কাছে সহায়তা চেয়েও পাননি। এর পেছনে স্থানীয় সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর ছেলের নির্দেশনা ছিল বলে অভিযোগ তার। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এমপি পুত্র সুনাম দেবনাথ।

রিফাত শরীফকে কুপিয়ে হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী ও প্রত্যক্ষদর্শী স্ত্রী মিন্নি। হত্যায় পুত্রবধূও জড়িত- রিফাতের বাবার এমন অভিযোগে সংবাদ সম্মেলনের তিনদিন পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মিন্নিকে বাসা থেকে নিয়ে যায় পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

গ্রেপ্তারের পর গেল বুধাবার, মিন্নিকে আদালত তোলা হলে তারপক্ষে দাঁড়াননি কোনো আইনজীবী। রিফাত হত্যার পরের দিন ফেসবুকে আসামিদের আইনি সহায়তা না দেয়ার অনুরোধ জানিয়ে পোস্ট দিয়েছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর ছেলে সুনাম দেবনাথ।

মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেনের অভিযোগ, এ কারণেই মিন্নির পক্ষে দাঁড়াননি কোনো আইনজীবী। তিনি বলেন, 'তারা আমাদেরকে বলছে যে ওপর থেকে নির্দেশ আছে মিন্নির পক্ষ থেকে কোনো আইনজীবী থাকবে না। আমি তিনজন আইনজীবীর কাছে গেলেও তারা আদালতে উপস্থিত থাকার কথা বললেও শেষ পর্যন্ত আদালতে উপস্থিত হননি।

তবে, এই অভিযোগ অস্বীকার করে এমপি পুত্র সুনাম দেবনাথ জানান, হত্যায় জড়িতরা যাতে ছাড় না পায় সে কারণেই ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছিলেন তিনি। একজন আইনজীবী হিসেবে সে তার মতামত দিয়েছে।

আইনি সহায়তা না পাওয়াকে দুঃখজনক উল্লেখ করে সচেতন নাগরিকরা বলছেন, এর দায় এড়াতে পারেন না আইনজীবীরা। বরগুনা প্রেসক্লাবের সভাপতি চিত্তরঞ্জণ শীল বলেন, 'আইনি সহায়তা পাওয়া সব নাগরিকের অধিকার। আশ্বাস দিয়েও আইনজীবীরা কেন আদালতে যায়নি তা খতিয়ে দেখা দরকার।'

বরগুনা সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন মিরাজ বলেন, 'তাকে আদালতে নেয়া হয়েছে, রিমান্ড দেয়া হয়েছে কিন্তু তার কোনো আইনি সহায়তা বা আইনজীবী না পাওয়াটা অমানবিক।'

আশ্বাস দিয়েও আইনজীবী অনুপস্থিত থাকার অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাহাবুবুল বারি আসলাম। তিনি বলেন, 'মিন্নির বাবা কোন আইনজীবীদের কাছে গেছেন তা আমরা জানি না। যদি আমাদের কাছে এমন অভিযোগ আসে যে আইনজীবী আদালতে যাবে বলে যায়নি তাহলে অবশ্যই আমরা এর ব্যবস্থা নেব।'

গত ২৬শে জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে কুপিয়ে গুরুতর আহত করা হয় রিফাত শরীফকে। ওইদিনই বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যালে মারা যান রিফাত।

আরও পড়ুন

২৪ ঘন্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত ১২৯৯ জন

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার কন্ট্রোল রুম থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘন্টায় (২৪-২৫শে আগস্ট) সারাদেশে নতুন ভর্তি হওয়া রোগীর...

'বঙ্গবন্ধু হত্যায় জিয়া জড়িত, প্রমাণ আছে'

বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডে জিয়াউর রহমানের জড়িত থাকার অনেক প্রমাণ আছে বলে জানিয়েছেন, কৃষিমন্ত্রী ডক্টর আব্দুর রাজ্জাক। রাজধানীতে শোকের মাস উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা স...

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলা: নিহত ১, আহত ৩

পাবনা সদর উপজেলায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় একজন নিহত ও গুরুতর আহত হয়েছে আরও তিনজন। রবিবার সন্ধ্যার পর, সদর উপজেলার দোগাছী ইউনিয়নের কুলুনিয়া...

কলেজের শহীদ মিনার ভেঙে সাংসদের বাবার ম্যুরাল

ভাষা শহীদদের স্মরণে নির্মিত শহীদ মিনার ভেঙে বাবার ম্যুরাল তৈরি করেছেন পাবনা-২ আসনের সংসদ সদস্য আহমেদ ফিরোজ কবির। পাবনার সুজানগর উপজেলার সাতবাড়িয়া ডিগ্রি কলেজে এ...