DBC News
খালেদা জিয়ার মতো ১২টা পর্যন্ত ঘুমিয়ে কাটালে কি খুশি হতেন: প্রধানমন্ত্রী

খালেদা জিয়ার মতো ১২টা পর্যন্ত ঘুমিয়ে কাটালে কি খুশি হতেন: প্রধানমন্ত্রী

বিএনপির সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানার এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কোনো প্রতিষ্ঠানকে অকার্যকর করার জন্য নয়, সব প্রতিষ্ঠানকে আরও সক্রিয় রাখার জন্য আমি সদা-সর্বদা সচেষ্ট থাকি। তা না হলে সংসদ সদস্যের নেত্রীর খালেদা জিয়ার মতো বারোটা পর্যন্ত ঘুমিয়ে কাটালে কি প্রশ্ন করে খুশি হতেন?

বুধবার জাতীয় সংসদে বিএনপির সাংসদ রুমিন ফারহানার প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

বুধবার জাতীয় বিএনপির সাংসদ রুমিন ফারহানা বলেন, দেশে ‘বর্তমানে মানুষ হত্যা হতে মশা মারা পর্যন্ত সকল ক্ষেত্রেই প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার প্রয়োজন হয়। এটাকে রাষ্ট্রের অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ভেঙে পড়া, অকার্যকর হওয়ার ইঙ্গিত বহন করে বলে অভিযোগ করেন।

এর জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, 'জনগণ আমাকে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব দিয়েছেন তাদের কল্যাণ নিশ্চিত করার জন্য। আরাম-আয়েসের জন্য প্রধানমন্ত্রিত্ব গ্রহণ করিনি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর কন্যা হিসেবে জনগণের প্রতি আমার দায়বদ্ধতার একটি আলাদা জায়গা রয়েছে। সেটাই আমি প্রতিপালন করার চেষ্টা করি। সেইজন্যই দিনরাত পরিশ্রম করি।'

এভাবে কাজ না করে তার নেত্রী খালেদা জিয়ার মতো ‘বেলা ১২টা পর্যন্ত ঘুমিয়ে কাটালেই’ তিনি খুশি হতেন কি না সেই প্রশ্নও করেছেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী।

এ সময় বিএনপি নেতৃত্বাধীন চারদলীয় জোট সরকারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া এবং তার ছেলে তারেক রহমানের কর্মকাণ্ডে ‘অকার্যকর রাষ্ট্রের উদাহরণ’ তৈরি হয়েছিল বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।