• বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯
  • সকাল ৭:৫৩

কুমিল্লায় তিন বক্তার ওয়াজ নিষিদ্ধ

কুমিল্লায় তিন বক্তার ওয়াজ নিষিদ্ধ
কুমিল্লায় জামায়াত সমর্থিত তারেক মনোয়ার সহ তিন বক্তার ওয়াজ নিষিদ্ধ

ওয়াজের নামে দেশে ধর্মীয় উস্কানিমূলক বক্তব্য রাখার অভিযোগ এনে জামায়াত সমর্থিত এক বক্তা সহ তিন বক্তার ওয়াজ কুমিল্লা জেলায় নিষিদ্ধ করেছে জেলা প্রশাসন। গত ১১ই নভেম্বর জেলা প্রশাসনের আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ওই বক্তাগন হলেন জামায়াত সমর্থিত মাওলানা তারেক মনোয়ার এবং অন্য দুই বক্তা হলেন মাও: জসিম উদ্দিন ও আব্দুর রাজ্জাক বিন ইউসুফ। 

জেলা প্রশাসক মো: আবুল ফজল মীর জানান, উল্লেখিত বক্তাগন ওয়াজের নামে সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করে আসছে। কারণ তাদের ওয়াজে ইসলামের আদর্শ দেশ প্রেমের চেয়ে উগ্রবাদ প্রকাশ প্রায়। তাই তাদের ওয়াজ নিষিদ্ধ করা হয়। 

কুমিল্লা জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে জানা জানা যায়, ২০১৬ সালে ৬ অক্টোবর জেলা আইনশৃংখলা কমিটির সভায় উপজেলা চেয়ারম্যানগণ, পৌর মেয়র এবং বিভিন্ন বক্তরা মাওলানা তারেক মনোয়ার ও মাওলানা আবদুর রাজ্জাক বিন ইউসুফ ছাড়া রয়েছেন মাওলানা জসিম উদ্দিনের ইসলামি আলোচনা নিয়ে অভিযোগ তোলেন। রাষ্ট্র বিরোধী ও ধর্মীয় উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়ে তারা সমাজ ও মানুষের মাঝে বিভ্রান্তি তৈরি করেন। এই তিন বক্তাকে নিয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে একটি রেজুলেশন তৈরি হয়। এরপর থেকে জেলা আইনশৃংখলা কমিটির সভায় তাদেরকে নিয়ে আলোচনা হয়ে আসছিল। পরবর্তীতে চলতি বছরের অক্টোবর মাসের জেলা আইনশৃংখলা কমিটির সভায় মাওলানা তারেক মনোয়ারসহ ওই তিন বক্তার ওয়াজ কুমিল্লায় নিষিদ্ধ করা হয়। গত সোমবার (১১ নভেম্বর) আইনশৃংখলা কমিটির সভায় সকল বিভাগের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে নিষিদ্ধ করার বিষয়টি ঘোষণা করা হয়।

কুমিল্লার পুলিশ সুপার সৈয়দ মো. নুরুল ইসলাম বলেন, আমাদের দেশের মানুষ সহজ-সরল ও অত্যান্ত ধর্মপ্রাণ। তাদের সরলতার সুযোগ নিয়ে ধর্মীয় অনুভূতিকে কাজে লাগিয়ে কোনো কোনো বক্তা ইসলামের ভুল ব্যাখ্যা উপস্থাপন করেন এবং শান্তিময় পরিবেশ নষ্ট করেন। তাদের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠায় শান্তিময় পরিবেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না হয় তাই জেলা প্রশাসন ওই তিন বক্তার ওয়াজ কুমিল্লায় নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

এদিকে আব্দুর রাজ্জাক বিন ইউসুফ এর কাছে এ বিষয়ে মুঠো ফোনে জানতে চাইলে তিনি উক্ত অভিযোগের ভিন্নমত প্রকাশ করে বলেন, আমি ধর্মীয় উস্কানিমূলক এবং সরকার বিরোধী কোন বক্তব্য দেই না। আমিই প্রথম এ দেশে জঙ্গী বিরোধী বক্তব্য দিয়েছি। আমার বক্তব্যের মাধ্যমে এ দেশের ইমাম সমাজ ও প্রশাসনকে নজর দেয়া অনুরোধ জানিয়েছি। আমার অসংখ্য বক্তব্য নেটে আছে। সেগুলো তদন্ত করলেই দেখা যাবে আমি ওই অভিযোগের সাথে কোন ভাবেই জড়িত নই। আমি এই দেশেরই সন্তান, কোনভাবেই দেশ বিরোধী নই। আমি শুধু আমার বক্তব্যের মাধ্যমে মানুষকে ইসলাম ধর্মের সঠিক কথাগুলো তুলে ধরার চেষ্টা করি। কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের এ ধরনের সিদ্ধান্ত থেকে আমাকে অভিযুক্ত না করার জন্য বিনীত ভাবে অনুরোধ করছি।

কুমিল্লা ঠাকুরপাড়া এলাকার বাসিন্দা মো: মনির হোসেন অভিযোগ করে জানান, জামায়াত সমর্থিত মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মাওলানা তারেক মনোয়ার ওয়াজের নামে বিভিন্ন মাহফিলে আসেন ৮০ হাজার থেকে ১ লাখ টাকা চুক্তিতে। তিনি তার ব্যক্তিগত সহকারীর মাধ্যমে ওইসমস্ত চুক্তি করে থাকেন। প্রতিটি মাহফিলের জন্য মাও: তারেক মনোয়ারের তারিখ চূড়ান্ত করতেই অগ্রিম দিতে হয় ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা। আর বাকী টাকা ওয়াজের মাহফিলের মঞ্চে উঠার আগেই পরিশোধ করতে হয়। পরিশোধ না হলে তিনি মঞ্চে উঠেন না। মঞ্চে ওঠার পূর্বেই পরিশোধ করতে হয়। 

ডেস্ক
ইসতিয়াক হোসেন
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ১৪ই নভেম্বর, ২০১৯
আপডেটঃ বুধবার, ১১ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:২৭


সর্বশেষ

আরও পড়ুন