• শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০
  • দুপুর ৩:২৩

শখে কুকুর পুষতে পুষতে এখন সংগ্রহশালা

শখে কুকুর পুষতে পুষতে এখন সংগ্রহশালা

শখ করেই কুকুর পোষা শুরু। ক্রমেই সেটি হয়ে গেল বিরল ও বিলুপ্ত প্রায় কুকুরের সংগ্রহশালা। রাঙ্গামাটি জেলার বাঘাইছড়ির মগবান এলাকায় গড়ে উঠেছে এই সংগ্রহশালা। এর উদ্যোক্তা বড় চাকমা কুকুরের পাশাপাশি অন্যান্য পশুপাখিও পালন করেন। তাই এর নাম দিয়েছেন ‘চাকমা কেনেল এন্ড এগ্রো ফার্ম’।

বাঘাইছড়ি উপজেলা সদর থেকে ৭ কিলোমিটার দূরে রূপকারী ইউনিয়নের মগবান গ্রাম। এই গ্রামের বাসিন্দা বড় চাকমা শখের বসে শুরু করেন কুকুর পোষা। এরপর সেখানে যোগ হতে থাকে বিরল এবং প্রায় বিলুপ্ত প্রজাতির কুকুর। পরে সেখান থেকে গড়ে তোলেন 'চাকমা কেনেল এন্ড এগ্রো ফার্ম'।


দেশের বিলুপ্তপ্রায় কুকুর সরাইল হাউন্ড, রাশিয়ার ককেশিয়ান শেফার্ড ও আলাবাই শেফার্ড, পাকিস্তানী বোলি কুকুর এবং জার্মান শেফার্ড এই পাঁচ জাতের মোট ২৬টি কুকুর রয়েছে এ কেনেলে।

এখানকার কুকুরগুলো হিংস্র হলেও এই কেনেলে যারা কাজ করেন তারা বেশ স্বাচ্ছন্দে কুকুরগুলোর সাথে মিশতে পারেন। ককেশিয়ান শেফার্ড, আলাবাই শেফার্ড শীত প্রধান দেশের, তাই এদেরকে শীতের মৌসুমেও ফ্যান ও এসির মধ্যে রাখা হয়।

২০১৭ সাল থেকে বিরল ও বিলুপ্তপ্রায় কুকুর সংগ্রহ শুরু করেন এই কেনেলের উদ্যোক্তা।

কুকুরগুলো খাঁচায় থাকলেও দিনের একটা নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বড় ঘের দেয়া মাঠে ছেড়ে দেয়া হয়।

ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ১৫ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০
আপডেটঃ শুক্রবার, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ০৩:১১


সর্বশেষ

আরও পড়ুন