• সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯
  • রাত ১২:৪১

আন্তর্জাতিক রেসিং কার প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের গাড়ি

আন্তর্জাতিক রেসিং কার প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের গাড়ি

রেসিং কারের দৌড়ে এবার বাংলাদেশের তৈরি গাড়ি। বিশ্বব্যাপী যন্ত্র প্রকৌশলীদের সংস্থা- 'আইমেকই' যুক্তরাজ্যে আয়োজন করছে ‘ফর্মুলা স্টুডেন্ট’ রেসিং কার প্রতিযোগিতা। নিজেদের তৈরি রেসিং কার নিয়ে এই প্রতিযোগিতায় যাচ্ছেন আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী। তবে আর্থিক সংকট তৈরি করেছে কিছুটা অনিশ্চয়তা।

সার্কিট দাবড়ে বেড়ানো দারুণ গতির রেসিং কার দেখে এতদিন কেবল মুগ্ধ দর্শকই হয়েছিল বাংলাদেশ। এবার সুযোগ এসেছে রেসের মাঠে নামার। এ বছর ১৭ থেকে ২১শে জুলাই যুক্তরাজ্যের নর্থ হ্যাম্পটনশায়ারের সিলভার স্টোন সার্কিটে অনুষ্ঠিত হবে ২১তম আইমেকই আয়োজিত ‘ফর্মুলা স্টুডেন্ট’ রেসিং কার প্রতিযোগিতা। সেখানে নিজেদের তৈরি রেসিং কার নিয়ে অংশ নেবে আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী। বিবেচনা করা হবে, গাড়ির গতি, জ্বালানী সাশ্রয়ী, পরিবেশ বান্ধবসহ বিভিন্ন বিষয়।

হাতে সময়ও নেই একদম।  তাই গাড়িটিকে পুরোপুরি প্রস্তুত করতে তুমুল ব্যস্ত সবাই। প্রথমবারের মতো তারা এতে অংশ নিচ্ছেন। প্রতিযোগিতার জন্য ফর্মুলা রেসের আদলে গড়া গাড়িটির নাম দিয়েছেন -‘এমএইচকে ১৯’। তরুণরা দলটির নাম রেখেছে ‘টিম প্রিমাস'। ৩১ জনের এই দলটিতে পরামর্শক হিসেবে আছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির যন্ত্রকৌশল বিভাগের দুজন শিক্ষক। আইমেকই প্রতিযোগিতায় নিজেদের এই উদ্ভাবন নিয়ে অংশ নেবেন তারা।

এই টিম প্রিমাসের লিডার এন্টনি বিধান বিশ্বাস বলেন, 'ওখানে আমাদের ২২ কিলোমিটার চালিয়ে দেখাতে হবে। দেখাবো কতটা এক্সিলারেশন হচ্ছে, কতটা স্পিডে হচ্ছে, কত তাড়াতাড়ি ব্রেক হচ্ছে। এটা সাসটেইনেবল কিনা এবং পরবর্তীতে এটা রেসিংয়ে অংশ নিতে পারবে কিনা।'

বিশ্বজুড়ে অটোমোবাইল খাতকে প্রযুক্তি দিয়ে সমৃদ্ধ করার জন্য আইমেকই এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে। ক্যারিয়ার গঠনে তরুণ সৃষ্টিশীল প্রকৌশলীদের উদ্বুদ্ধ করা এই প্রতিযোগিতার অন্যতম উদ্দেশ্য।

টিমের এক সদস্য জানান, 'ইঞ্জিন সেট আপ থেকে শুরু করে সব কিছু আমাদের নিজেদের করা। গাড়ির যত প্রকার ইলেক্ট্রিকাল কম্প্লিকেশন আছে সেগুলো আমরা দেখছি।'

এবারের আসরে ৩০টি দেশের ১২০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছেন। তবে আর্থিক সংকটের কারণে অংশগ্রহণ করা নিয়ে কিছুটা অনিশ্চয়তা রয়েছে বাংলাদেশ দলটির। এ বিষয়ে অন্য একজন সদস্য জানান, 'এটা শুধু আমাদের জন্য সুযোগ তা নয়, অটোমোবাইল ইন্ডাস্ট্রিজের সঙ্গে এত বড় একটা প্ল্যাটফর্মে বাংলাদেশকে আমরা রিপ্রেজেন্ট করতে যাচ্ছি। তাই, অনুরোধ বাংলাদেশের যতগুলো বড় বড় প্রাইভেট কোম্পানি আছে তারা যেন আমাদের হেল্প করে।'

ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ৭ই জুলাই, ২০১৯
আপডেটঃ সোমবার, ১৪ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ০২:২৬


সর্বশেষ

আরও পড়ুন