• রবিবার, ১৬ মে ২০২১
  • রাত ১২:২৮

লর্ডসের মাঠকর্মী থেকে নিউজিল্যান্ডের কোচ

লর্ডসের মাঠকর্মী থেকে নিউজিল্যান্ডের কোচ

ভাগ্যের খেলা বুঝি একেই বলে! ২৯ বছর আগে ক্রিকেটের তীর্থস্থান লর্ডসের দরজা-জানালা পরিষ্কারের কাজ করতেন যে কিশোর, সেই এখন সাজাচ্ছেন বিশ্বকাপের ট্রফি জয়ের রণকৌশল। তিনি নিউজিল্যান্ড কোচ গ্যারি স্টিড। যে মাঠ কর্মীর হাত ধরে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ের স্বপ্ন দেখছে কিউইরা।

১৯৯০ সালে লর্ডসে কত জন মাঠকর্মী কাজ করতো তাদের মধ্যে গ্যারি স্টিড নামে ১৮ বছরের এক তরুন ছিলেন। ওখান থেকে কতজনই বা এখন আছেন লর্ডসে? তবে ২৯ বছর পর ফের একই মাঠে আবারও স্টিড, আইসিসি বিশ্বকাপের ফাইনালের মঞ্চে, ভিন্ন এক ভূমিকায়। প্রায় তিন দশকে বদলে গেছে পুরো দৃশ্যপট লর্ডসের প্যাভিলিয়নের জানালা পরিস্কার করা ১৮ বছর বয়সী স্টিড, ফাইনালিস্ট টিম ব্ল্যাক ক্যাপদের হেড কোচ।

যদিও, নিউজিল্যান্ড কোচ গ্যারি ক্রিকেটার হিসেবে ছিলেন না অতোটা উজ্জ্বল। ব্ল্যাক ক্যাপদের হয়ে ৯ মাসের ক্রিকেট ক্যারিয়ারে খেলেছেন মোট ৫টি টেস্ট। প্রায় ৩৫ গড়ে রান ২৭৮। তবে, ছোট স্বল্প সময়ের খেলোয়াড়ি জীবনে কখনো আউট হননি সিঙ্গেল ফিগারে। যদিও গায়ে ওঠেনি রঙিন পোষাক। ১৯৯৯ এর মার্চে শুরু হওয়া ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছেন ঐ বছরেরই ডিসেম্বরে।

খেলোয়াড়ি জীবনকে বিদায় দিয়েই ব্যস্ত হয়েছেন কোচিং নিয়ে। নিউজিল্যান্ডের নারী ক্রিকেট দলের সফলতম কোচ ঠিকই নজর কেড়েছেন বোর্ডের। মাইক হেসনের বিদায়ের পরই ২০১৮তে পান জাতীয় দলের ভার। দায়িত্ব নেবার পর দুই ওয়ানডে সিরিজে জয়ের সাথে একটা জয় আর ড্র একটাতে।

বিশ্বকাপের আগে ফেভারিটের তালিকায় সেভাবে নাম না থাকলেও, চমক দেখিয়ে টানা দ্বিতীয়বার ফাইনালে নিউজিল্যান্ড। আর, মাত্র একটা ধাপ পিছিয়ে গ্যারি স্টিড। ভালোবাসার মাঠেই পূরন করতে চান জীবনের সবচেয়ে বড় স্বপ্ন।

ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ১৪ই জুলাই, ২০১৯


সর্বশেষ

আরও পড়ুন