• বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯
  • রাত ১০:২২

ফাইনালে রুদ্ধশ্বাস জয় ইংল্যান্ডের

ফাইনালে রুদ্ধশ্বাস জয় ইংল্যান্ডের

নির্ধারিত ৫০ ওভারে কোনো রেজাল্ট না আসায় প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে। আর সুপার ওভারে গড়ানো ম্যাচে রুদ্ধশ্বাস জয় তুলে নিয়ে প্রথমবারের মতো শিরোপার স্বাদ নিলো ক্রিকেটের জনক ইংল্যান্ড।

লর্ডসে অনুষ্ঠিত ফাইনাল ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা নিউজিল্যান্ডকে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ২৪১ রানে আটকে দেয় ইংল্যান্ড। পরে, ইংল্যান্ড ব্যাট করতে নেমে ২৪১ রান তুলতে হিমশিম খেয়ে যায়। কিন্তু, টিমকে জয়ের পথে ধরে রাখেন বেন স্টোকস। তবে, ট্রেন্ট বোল্টের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ২৪১ রানেই আটকে যায় ইংল্যান্ড। ফলে, ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে।

সুপার ওভারে ব্যাট করতে নেমে ১৫ রান তুলতে সক্ষম হন জস বাটলার এবং বেন স্টোকস। ইংল্যান্ডের দেয়া ১৬ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে জফরা আর্চারের ওভারে দুই কিউই ব্যাটসম্যান গাপটিল এবং জিমি নিশামও করেন ১৫ রান।

কিন্তু, ম্যাচ শেষে বেশি বাউন্ডারি হাঁকানোয় এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

টস জিতে আগে ব্যাট করে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৪১ রান তোলে নিউজিল্যান্ড। ব্যাটিংয়ে নেমে সর্বোচ্চ ৫৫ রান করেন হেনরি নিকোলস। ৪৭ রান করেন টম লাথাম। এছাড়া ব্লাক ক্যাপস অধিনায়কের ব্যাট থেকে আসে ৩০ রান। ম্যাচে ৩টি করে উইকেট নেন ক্রিস ওকস আর লিয়াম প্ল্যাংকেট।

জবাবে দলীয় শতক পূর্ণ করার আগেই ৪ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। তবে, পঞ্চম উইকেটে বেন স্টোকস আর জস বাটলারের ১১০ রানের জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় ইংলিশরা। ৫৯ করা বাটলারকে আউট করে আবারও ম্যাচে ফেরে নিউজিল্যান্ড। তবে, স্টোকসকে আর সঙ্গ দিতে পারেননি কেউ। ওর অপরাজিত ৮৪ রানে ২৪১ রানেই থেমে যায় ইংল্যান্ডের ইনিংস।

ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে। ছয় বলে ইংল্যান্ড করে ১৫ রান। জবাবে জোফরা আর্চারের করা ওভারে নিউজিল্যান্ডও করে ১৫ রান। তবে, পুরো ম্যাচে বাউন্ডারি বেশি হাকানোয় চ্যাম্পিয়ন হয় ইংল্যান্ড। কপাল পোড়ে নিউজিল্যান্ডের। টানা দ্বিতীয়বার রানার্স আপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় ব্ল্যাক ক্যাপসদের।

ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ১৫ই জুলাই, ২০১৯
আপডেটঃ বুধবার, ১১ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ০১:৪০


সর্বশেষ

আরও পড়ুন