• শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১
  • সকাল ৭:১৮

'এশিয়ায় সবচেয়ে কম মজুরি পায় বাংলাদেশের শ্রমিকরা'

'এশিয়ায় সবচেয়ে কম মজুরি পায় বাংলাদেশের শ্রমিকরা'
এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে কম মজুরি পান বাংলাদেশের শ্রমিকরা। আইএলও'র প্রতিবেদন অনুযায়ী, বাংলাদেশের সর্বনিম্ন এ মজুরি আন্তর্জাতিক দারিদ্রসীমার সবচেয়ে নিচের স্তরের চেয়েও কম।

আইএলও গ্লোবাল ওয়েজ রিপোর্ট ২০২০-২১ এ করোনা মহামারির প্রেক্ষাপটে গত চার বছরে বিশ্বের ১৩৬টি দেশের মজুরি হারের গতিপ্রকৃতি তুলে ধরা হয়েছে। আইএলও বলছে, মহামারি আঘাত হানার আগে থেকেই বিশ্বব্যাপী শ্রমিকরা ন্যূনতম হারের চেয়েও কম মজুরি পেয়ে আসছিলেন। ২০২০ সালের প্রথম ছয় মাসে মজুরি বেড়েছে বা কমেছে আগের চেয়ে অনেক কম হারে। মহামারির প্রভাবে বিশ্বব্যাপী মজুরি আরো কমতে পারে বলে আশঙ্কাও প্রকাশ করছে আইএলও।

আগের চার বছরে মজুরি হার বিশ্লেষণে দেখা যায়, বৈশ্বিক প্রকৃত মজুরি ১.৬ থেকে ২.২ শতাংশে ওঠানামা করেছে। উত্তর আমেরিকা এবং দক্ষিণ ও পশ্চিম ইউরোপে অনেক শ্লথ গতিতে বাড়লেও এশিয়া এবং প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে প্রকৃত মজুরি বেড়েছে অনেক দ্রুতগতিতে।

২০১৯ সালে ক্রয়ক্ষমতার ভিত্তিতে বৈশ্বিক গড় ন্যূনতম মজুরি ছিল ৪৮৬ ডলার। এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলে ন্যূনতম মজুরি গড় ৩৮১ ডলার। এর মধ্যে সবচেয়ে কম মজুরি হার বাংলাদেশে মাত্র ৪৮ ডলার। এ অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি ন্যূনতম মজুরি অস্ট্রেলিয়ায় ২ হাজার ১৬৬ ডলার।

ক্রয়ক্ষমতা বিবেচনায়, দারিদ্র্যসীমার সবচেয়ে নিচের স্তরটি হলো ১ দশমিক ৯ ডলার। এর ওপরের স্তর ৩.২ ডলার এবং সবার ওপরেরটি ৫.৫ ডলার। এ পর্যালোচনায় আইএলও দেখিয়েছে যে, এশিয়া প্যাসিফিকে বাংলাদেশ একমাত্র দেশ, যাদের ন্যূনতম মজুরি আন্তর্জাতিক দারিদ্র্যসীমার নিম্নস্তর পর্যন্তও পৌঁছাতে পারেনি।

ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০


সর্বশেষ

আরও পড়ুন