• সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯
  • সকাল ৭:৫৫

'জয় শ্রীরাম' না বলায় মুসলিম দম্পতিকে মারধর, শ্লীলতাহানি

'জয় শ্রীরাম' না বলায় মুসলিম দম্পতিকে মারধর, শ্লীলতাহানি
জয় শ্রীরাম বলতে অস্বীকার করায় যুবককে মারধর, স্ত্রীকে শ্লীলতাহানি।

ভারতের রাজস্থানে এক মুসলিম দম্পতি ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দিতে অস্বীকার করায় যুবককে মারধর এবং তার স্ত্রীকে শ্লীলতাহানি করে। এ ঘটনায় পুলিশ বংশ ভরদ্বাজ (২৩) এবং মোহন ভাটিয়া (৩২) নামের দুই যুবকে গ্রেপ্তার করেছে রাজ্যটির পুলিশ। রাজস্থান রাজ্যের আলওয়ার শহরে এ ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায়, তাদের দু’জনকে আদালতে পেশ করা হলে আগামী ১৮ই অক্টোবর পর্যন্ত বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত দু’জনের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪-এ, ২৯৫, ৫০৯, ৩২৩ ও ৩৮৬ ধারা মামলা রুজু করা হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলোতে বলা হয়েছে, বংশ ভরদ্বাজ ও সুরেন্দ্র মোহন ভাটিয়া নামের দুই যুবক এক মুসলিম দম্পতিকে ‘জয় শ্রীরাম ধ্বনি’ দিতে বাধ্য করলে বিবাদের সৃষ্টি হয়। তারা ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে অস্বীকার করায় দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে ভরদ্বাজ ও সুরেন্দ্র মুসলিম যুবককে মারধর করে এবং তার স্ত্রীর শ্লীলতাহানি করে। এ সময়, ঘটনাস্থলে উপস্থিত ব্যক্তিরা অভিযুক্ত দুই যুবককে মারধর করে আলওয়ারের কোতয়ালী থানায় হস্তান্তর করে।

হরিয়ানার নুহ মেওয়াতের বাসিন্দা মুসলিম দম্পতি গেল শানিবার রাতে আলওয়ারের বাসস্ট্যান্ডে তাদের গন্তব্যে যাওয়ার জন্য দাঁড়িয়ে ছিলেন। এ সময়, দুই যুবক মোটরসাইকেলে করে এসে তাদের ‘জয় শ্রীরাম ধ্বনি দিতে বাধ্য করে। তখন ভুক্তভোগীরা বলেন, ‘মুসলমানরা হিন্দুস্তানে থাকে কিন্তু রাম-রান জপ করে না।‘ এরপরই ওই দম্পতিকে মারধর করা হয়।

পরে, দম্পতি আশেপাশের লোকজনের কাছে সাহায্যের আবেদন করলে দুই যুবককে পিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ৭ই অক্টোবর, ২০১৯
আপডেটঃ সোমবার, ১৪ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১১:৩৭


সর্বশেষ

আরও পড়ুন