• বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০
  • রাত ১১:৫৬

টানা ৬১ দিন ধরে ছিন্নমূল মানুষের পাশে ডাকসু নেতা সৈকত

টানা ৬১ দিন ধরে ছিন্নমূল মানুষের পাশে ডাকসু নেতা সৈকত
করোনা সংকটে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে প্রতিদিন এক হাজার কর্মহীনকে খাবার দিচ্ছেন ডাকসুর সদস্য তানভীর হাসান সৈকত। গেলো ৬১ দিন ধরে সৈকতের নেতৃত্বে চলছে এই কর্মসূচি। এছাড়া ভাইরাসটি সম্পর্কে সচেতন করার পাশপাশি দিচ্ছেন স্বাস্থ্যসেবাও।

মার্চে করোনার সংক্রমণের পর আয়ের পথ বন্ধ। ফলে বিপাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার শ্রমজীবী এসব  মানুষ। প্রথমে ৮০ জনের মধ্যে দিনে একবেলা খাবার বিতরণ শুরু করেন ছাত্রলীগ নেতা ও ডাকসুর সদস্য তানভীর হাসান সৈকত।

রমজানে নতুন ভাবে যুক্ত হয় ইফতার ও সেহরি।মুসলমানদের জন্য সেহরি, ইফতার ছাড়াও অন্যাণ্য ধর্মাবলম্বীদের জন্য দুপুরের খাবার মিলিয়ে প্রতিদিন একহাজার মানুষের মধ্যে খাবার বিতরণ করা হচ্ছে।

ডাকসু'র সদস্য তানভীর হাসান সৈকত বলেন, 'এই শহরে অসংখ্য মানুষ রয়েছে, যারা দিন আনে দিন খায়। তারাও কিন্তু বিপদগ্রস্থ এখন। আমরা দু বেলা খাবর দিচ্ছি। এই কার্যক্রম এই নিয়ে ৬১ দিন ধরে চলছে।'

স্বাস্থ্য সচেতন করতে  গঠন করা হয়েছে মেডিকেল টিম। সহায়তা প্রাপ্তরা জানান,' তিনি যেভাবে করছেন এমনভাবে ঢাকা শহরে আর কেউ করেনি। তিনি ওষুধও কিনে দেন।'

প্রথমে  সৈকত  ব্যক্তিগতভাবে একাজ শুরু করেন। এখন  বিভিন্ন  ব্যাক্তি ও  সংগঠন নানা ভাবে সহযোগিতা করছেন। তবে  টিএসসির রান্নাঘরটি ব্যবহারের অনুমতি না পাওয়ায় টিএসসি প্রাঙ্গনে ঝড়-বৃষ্টির মধ্যেও লাকড়ির চুলা বসিয়ে রান্না কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন সৈকত।

তানভীর হাসান সৈকত আরও বলেন, 'আমরা ঈদে মহিলা ও বাচ্চাদেরকে জামাকাপড় দিয়েছি। এখন পুরুষদেরটা বাকি আছে। আমরা সেটাও দিব।

করোনা সংক্রমণ কমলেও সারাজীবন এসব মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করতে চান সৈকত।

ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ২৩শে মে, ২০২০
আপডেটঃ বুধবার, ৩রা জুন, ২০২০ দুপুর ০২:৩৩


সর্বশেষ

ঘটনাপ্রবাহ বিশ্লেষণঃ

আরও পড়ুন