• বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯
  • সকাল ৫:৩৭

প্রক্টরের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ বিদেশি ছাত্রীর

প্রক্টরের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ বিদেশি ছাত্রীর
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির লিখিত অভিযোগ করেছেন বিদেশি ছাত্রী।

বিতর্ক ‍পিছু ছাড়ছে না গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের। এবার, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর হুমায়ূন কবীরের বিরুদ্ধে উঠেছে যৌন হয়রানির অভিযোগ। বিশ্ববিদ্যালয়টির এক নেপালী ছাত্রী ১২ই নভেম্বর কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিতভাবে হয়রানির অভিযোগ করেন। প্রক্টর হুমায়ূন কবীরের দাবি, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ সাজানো।

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে গত সেপ্টেম্বরে পদত্যাগ করেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি নাসিরউদ্দিন। ঐ আন্দোলন চলার সময় এক পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায় ভিসি সমর্থকরা। তার প্রতিবাদে সহকারী প্রক্টরের পদ থেকে পদত্যাগ করে আলোচনায় আসেন সহকারী অধ্যাপক হুমায়ূন কবীর। এবার সেই শিক্ষকের বিরুদ্ধেই যৌন হয়রানির অভিযোগ এনেছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির এক নেপালি শিক্ষার্থী।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক ও বিভিন্ন সময়ে সরাসরি যৌন হয়রানির স্বীকার হয়েছেন বলে অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেছেন নেপালি ওই শিক্ষার্থী।

তবে, পুরো বিষয়টি সাজানো বলে দাবি করেছেন সহকারী প্রক্টর হুমায়ূন কবীর। আন্দোলনের সময় তার নামে করা একটি ভুয়া ফেইসবুক আইডি নিয়ে থানায় জিডি করেন বলেও জানান তিনি। যৌন হয়রানির বিষয়টি সাজানো বলে মন্তব্য করে সহকারী প্রক্টর হুমায়ূন কবীর বলেন, 'ভিসি বিরোধী আন্দোলনের সময় থেকে একটি চক্র নানাভাবে হয়রানির চেষ্টা করছে।' তাই বিষয়টি নিয়ে মামলা করবেন তিনি। হুমায়ূন কবীর আরও বলেন, ভিসিপন্থী লোকজন তাকে হেনস্থা করার জন্যই এমন পন্থা বেছে নিয়েছে।

এ বিষয়ে, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্জ প্রফেসর ড. মো. শাহজাহান বলেন, অপরাধী যে ই হোক, সঠিক তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এর আগে, এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি নাসির উদ্দিনসহ ৩ শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠে। তাই সঠিক তদন্ত করে প্রকৃত অপরাধীকে বিচারের আওতায় আনার দাবি শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের।

ডেস্ক
এ. এস. এম রেজওয়ানুছ সাদাত
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ১৩ই নভেম্বর, ২০১৯
আপডেটঃ বুধবার, ১১ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ০৭:৪৯


সর্বশেষ

আরও পড়ুন