• রবিবার, ১৬ মে ২০২১
  • রাত ১২:২২

প্রতিমা ভাঙচুর ও সংখ্যালঘু পল্লীতে হামলা, আ.লীগ নেতা বহিষ্কার

প্রতিমা ভাঙচুর ও সংখ্যালঘু পল্লীতে হামলা, আ.লীগ নেতা বহিষ্কার
সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার ফুলতলা গ্রামের সংখ্যালঘু পল্লীতে হামলাসহ মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আওয়ামী লীগ নেতা আকবর পাড়কে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

শ্যামনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক এসএম আতাউল হক দোলন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে বুধবার (১৪ এপ্রিল) তাকে সাময়িকভাবে বহিস্কারের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। উত্তর কদমতলা গ্রামের মৃত আজাদ আলী পাড়ের ছেলে আকবর পাড় উপজেলার মুন্সিগঞ্জ ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং ইউপি সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, গত ১৩ এপ্রিল রাতে আপনার নেতৃত্বে মুন্সিগঞ্জ উত্তর কদমতলা পল্লীর হিন্দু সম্প্রদায়ের শীতল মায়ের মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুরসহ সুভাষ চন্দ্র বাউলিয়া, নগেন্দ্র নাথ বাউলিয়া বসতঘর ভাঙচুর, শিশু ও নারী-পুরুষদের ওপর জঘন্য হামলা করে অন্তত আটজনকে আহত করার ঘটনায় আপনি প্রাথমিকভাবে দোষী প্রতীয়মান হয়েছে। সংগঠনবিরোধী এমন কর্মকাণ্ডের জন্য আপনাকে সাময়কিভাবে বহিষ্কার করা হলো।

এদিকে, বহিষ্কারের বিষয়ে কথা বলার জন্য একাধিকবার চেষ্টা করেও আকবর পাড়ের মুঠোফোন বন্ধ থাকায় কথা বলা সম্ভব হয়নি।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) রাতে মুন্সিগঞ্জের ফুলতলা গ্রামের সংখ্যালঘু পল্লীতে বহিরাগত সন্ত্রাসীরা ব্যাপক তাণ্ডব চালায়। এসময় হামলাকারীরা বেশ কয়েকটি হিন্দু পরিবারের বসতঘরসহ শীতল মন্দির ও রাশ মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুর করে। হামলার ঘটনায় নারী পুরুষসহ অন্তত ১৩ জন আহত হয়। স্থানীয় ইউপি সদস্য আকবর পাড় এবং শেখ রাসেল শিশু কিশোর পরিষদের ইউনিয়ন সভাপতি পল্লব কুমার বহিরাগতদের নিয়ে হামলার নেতৃত্ব দেয় বলে অভিযোগ ওঠে। এ ঘটনায় আহত সুভাষ বাউলিয়ার দায়ের করা মামলায় সরকার দলীয় এ দুই নেতাকে প্রধান আসামি করা হয়।

ডেস্ক
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ১৬ই এপ্রিল, ২০২১


সর্বশেষ

ঘটনাপ্রবাহ বিশ্লেষণঃ

আরও পড়ুন