• শনিবার, ০৬ জুন ২০২০
  • সকাল ৫:১৬

বিয়ের প্রলোভনে প্রেমিকাকে ধর্ষণ; কলেজছাত্র প্রেমিকের বিরুদ্ধে মামলা

বিয়ের প্রলোভনে প্রেমিকাকে ধর্ষণ; কলেজছাত্র প্রেমিকের বিরুদ্ধে মামলা
বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করা প্রেমিক ও তার দুই সহযোগীর বিরুদ্ধে নির্যাতিত কলজছাত্রীর মামলা দায়ের।

নরসিংদীর বেলাবতে এক কলেজ ছাত্রীকে (১৯) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে প্রেমিক কর্তৃক একাধিকবার ধর্ষণ ও তার দুই সহযোগী কর্তৃক ইভটিজিংয়ের অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছে। রবিবার (২৯ মার্চ) বিকেলে নির্যাতিত কলেজছাত্রী বাদী হয়ে প্রেমিকসহ তিনজনকে আসামি করে বেলাব থানায় এ মামলা দায়ের করেন।

মামলা দায়ের করার পর অভিযুক্ত ধর্ষক রাসেল মিয়া (১৯) পলাতক রয়েছে। তার দুই সহযোগী সজিব মিয়া (২০) ও রিয়াজ মিয়াকে (২১) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতদের ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে নরসিংদী আদালতে পাঠানো হয়েছে। বেলাব থানার উপ-পরিদর্শক মীর সোহেল রানা মামলার তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, বেলাব উপজেলার দীঘলদীকান্দা এলাকার বাসিন্দা ও ভৈরবের একটি কলেজে অনার্স পড়ুয়া ওই ছাত্রীর সঙ্গে পার্শ্ববর্তী জুহুরিয়াকান্দা গ্রামের মুর্শিদ মিয়ার ছেলে ও ভৈরব হাজী আসমত কলেজের অনার্স পড়ুয়া ছাত্র রাসেল মিয়ার প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। প্রেমের সম্পর্ক চলাকালীন ১ বছর ধরে ওই কলেজছাত্রীকে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রেমিক রাসেল একাধিকবার ধর্ষণ করে।

সর্বশেষ গত ৩রা মার্চ রাত সাড়ে ১১টায় উক্ত কলেজছাত্রীকে তার বাড়ির পাশের একটি ফসলী জমিতে নিয়ে ধর্ষণ করে প্রেমিক রাসেল। এ সময় ওই ছাত্রী প্রতিশ্রুতি মোতাবেক প্রেমিক রাসেলকে বিয়ে করার জন্য চাপ প্রয়োগ করে। এতে রাসেল নানা তালবাহানা করে সময়ক্ষেপণ শুরু করে। তালবাহানা বুঝতে পেরে কলেজছাত্রী ঘটনাটি রাসেলের পরিবারসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানালে রাসেল বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। গত ১৬ই মার্চ ওই ছাত্রী এসব ঘটনায় রাসেলের বিরুদ্ধে বেলাব থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন।

সাধারণ ডায়েরির পর অভিযুক্ত রাসেল ও তার পরিবার ক্ষিপ্ত হয়ে ওই ছাত্রীর ব্যক্তিগত মোবাইল নাম্বার তার বন্ধুদের মাঝে ছড়িয়ে দেয়। এমন কী প্রতিবেশী রহিছ মিয়ার ছেলে সজিব মিয়া ও রাজু মিয়ার ছেলে রিয়াজ মিয়াকে উত্যক্ত করার জন্য কলেজ ছাত্রীর পিছনে লেলিয়ে দেয়।

রাসেলের বন্ধু সজিব ও রিয়াজ এ সুযোগে ওই ছাত্রীর চরিত্র নিয়ে এলাকায় বদনাম রটাতে থাকে এবং বাড়ির বাইরে বের হলে বিভিন্ন অশ্লীল মন্তব্য করে প্রতিনিয়ত উত্ত্যক্ত করতে থাকে। তাদের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়ে ছাত্রীটি তার মামার বাড়ি গিয়ে আশ্রয় নেয়।

খবর পেয়ে শনিবার (২৮ মার্চ) রাত সাড়ে ৮টায় সজিব ও রিয়াজ মামার বাড়িতে গিয়েও ছাত্রীকে অশ্লীল মন্তব্য করাসহ তাকে টানা-হেচড়া করতে থাকে। এ সময়, তার চিৎকারে আশেপাশের মানুষ ছুটে এসে দুই বখাটে সজিব ও রিয়াজকে আটক করে বেলাব থানায় সোপর্দ করে। এ ঘটনায় নির্যাতনের শিকার কলেজছাত্রী বাদী হয়ে ধর্ষণ ও ইভটিজিং এর দায়ে তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও বেলাব থানার উপ পরিদর্শক মীর সোহেল রানা বলেন, এ ঘটনায় বেলাব থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। সজিব ও রিয়াজ নামে দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে নরসিংদী আদালতে পাঠানা হয়েছে। পলাতক অভিযুক্ত ধর্ষক রাসেলকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

ডেস্ক
Narsingdi Correspondent
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ২৯শে মার্চ, ২০২০
আপডেটঃ শুক্রবার, ৫ই জুন, ২০২০ বিকাল ০৩:২২


সর্বশেষ

ঘটনাপ্রবাহ বিশ্লেষণঃ

আরও পড়ুন