• শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১
  • দুপুর ১:১৬

বড়দিন: এবার উৎসব উদযাপনে সতর্কতার বার্তা

বড়দিন: এবার উৎসব উদযাপনে সতর্কতার বার্তা
২৫শে ডিসেম্বর বড়দিন, যিশুখ্রিষ্টের জন্মোৎসব। বিশ্বব্যাপী প্রাকৃতিক দুর্যোগ এবং করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে এবারের বড়দিনে পরিবেশের বিরুদ্ধাচরণ থেকে সরে আসা, ভোগবাদকে বিদায় জানানো, সহনশীলতা, সম্প্রীতি ও মিলনকে প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে।

খ্রিষ্টধর্ম মতে, ২০২০ বছর আগে ইসরায়েলের বেথলেহেম নগরে এক গোয়ালঘরে জন্মেছিলেন যিশুখ্রিষ্ট। খ্রিষ্ট বিশ্বাস অনুযায়ী, ঈশ্বরের বিশেষ পরিকল্পনা ও আশির্বাদে মারীয়া নামে এক কুমারীর গর্ভে তাঁর জন্ম।

যিশুখ্রিষ্ট নামের অর্থ পরিত্রাতা। পবিত্র বাইবেল অনুসারে, মানুষকে পুণ্যের পথে পরিচালিত করতে যিশুকে পৃথিবীতে পাঠিয়েছিলেন ঈশ্বর। যিশুর জন্মের বহু বছর আগে থেকেই পৃথিবীতে তাঁর আগমনবার্তা বিভিন্ন প্রবক্তার মাধ্যমে ঈশ্বর মানুষের কাছে পৌঁছে দিয়েছিলেন।

যিশুখ্রিষ্টের আগমনকে সুগম করতে বহুবিধ প্রস্তুতি নিয়েছেন খ্রিষ্টভক্তরা। আধ্যাত্মিক প্রস্তুতি হিসেবে পাপস্বীকার, প্রায়শ্চিত্তে খ্রিষ্টধর্মাবলম্বীদের প্রস্তুতি ওরকমই। আর প্রার্থনায় মহামারীসহ সবরকম ব্যাধি থেকে মুক্তির আকুতি।

বৈষয়িক প্রস্তুতিরও কমতি নেই।  গির্জাগুলোর সজ্জা উৎসবসম। তবে এবারের বড়দিনের খ্রিষ্টযাগ ও উৎসব উদযাপনে থাকছে করোনা থেকে সতর্কতার বার্তা।
 
ঢাকা মহাধর্মপ্রদেশের আর্চবিশপ বিজয় নিসফরাস ডি' ক্রুজ বলেন, "বড় দিন বয়ে আনুক নতুন আশা, সুস্থতা, করোনা ভাইরাসের হাত থেকে মানুষ মুক্তি লাভ করুক। এই পৃথিবী থেকে দূর হোক অন্যায়, অত্যাচার, শোষণ, শাসন।"

বাংলাদেশ খ্রিষ্টান অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট নির্মল রোজারিও বলেন, " আমরা যেন এই করোনা পরিস্থিতিতে সতর্ক থাকি। আবার যখন ভাল পরিস্থিতি আসবে আমরা তখন যাকজমকভাবে পালন করবো।"  

বরাবরের মতোই রাজধানীর পাঁচ তারকা হোটেলগুলোও উৎসব উদযাপনে বাহারি সাজে সেজেছে।  সেখানেও এবার স্বাস্থ্যবিধি মানতে থাকছে সতর্কতা। বাসা বাড়িতেও উৎসবের রঙ। তবে সেখানেও থাকছে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার প্রত্যয়।

ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ২৪শে ডিসেম্বর, ২০২০
আপডেটঃ বুধবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ০২:২৫


সর্বশেষ

আরও পড়ুন