• রবিবার, ১৬ মে ২০২১
  • রাত ১২:২৮

ভালবাসার দিবসে জেনে নিন ভালবাসা দিবসের আসল ঘটনা!

আজ ১৪ই ফেব্রুয়ারি, বিশ্ব ভালবাসা দিবস। ঠিক কি কারণে কবে থেকে ভ্যালেন্টাইন ডে পালন শুরু হয় তা নিয়ে আছে বিতর্ক।  তবে বিশ্বব্যাপী নানা আয়োজনে পালিত হচ্ছে দিবসটি। উদযাপনের ধারায় বাংলাদেশ যুক্ত হওয়ার ইতিহাস খুব বেশি দিনের নয়।

ভালোলাগা আর ভালোবাসার প্রবৃত্তি মানুষের সহজাত। তবে প্রেমিক-প্রেমিকা, বন্ধু-বান্ধব, স্বামী-স্ত্রী, মা-সন্তান, ছাত্র-শিক্ষকসহ নানা বন্ধনে আবদ্ধ মানুষেরা ১৪ই ফেব্রুয়ারি বিশেষভাবে উদযাপন করে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস।

১৪ ফেব্রয়ারিই কেন ভালোবাসা দিবস? প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গিয়ে জানা যায় বেশকিছু প্রচলিত ঐতিহাসিক ঘটনা।

প্রেমের দেবী জুনোর সম্মানে প্রাচীন রোমে ১৪ ফেব্রুয়ারি ছিল ছুটির দিন।  অনেকের মতে, এ জন্যেই এই দিনটিকে ভালোবাসা দিবস হিসেবে পালন করা হয়।

জনশ্রুতি আছে, ২০০ খ্রিস্টাব্দে রোমের সম্রাট ক্লডিয়াস দেশে বিয়ে প্রথা নিষিদ্ধ করেন। তিনি ঘোষণা দেন, যুবকদের জন্য বিয়ে নয়, শুধুই যুদ্ধ। ঘোষণার প্রতিবাদ করেন ভ্যালেন্টাইন নামের এক যুবক। রাজদ্রোহের শাস্তি হিসেবে ১৪ই ফেব্রুয়ারি মাথা কেটে ফেলা হয় তার। ভালোবাসার জন্য ভ্যালেন্টাইনের আত্মত্যাগের স্মরণে দিনটিকে পালন করা হয়।

তবে সবচেয়ে প্রচলিত ইতিহাসটি হচ্ছে রোমের ধর্মযাজক সেন্ট ভ্যালেন্টাইনের। রোম সম্রাট দ্বিতীয় ক্লডিয়াস দেব-দেবীর পূজা করতে আদেশ দেন ভ্যালেন্টাইনকে। কিন্তু আদেশ অমান্য করায় ক্রুদ্ধ সম্রাট ভ্যালেন্টাইনকে মৃত্যুদণ্ড দেন। তখন থেকে শুরু হয় ভ্যালেন্টাইন ডে।

আবার অনেকের ধারণা, আদেশ অমান্য করায় ভ্যালেন্টাইনকে কারারুদ্ধ করে সম্রাট। তরুণদের অনেকেই ফুল হাতে প্রতিদিন তাকে কারাগারে দেখতে আসত । এক অন্ধ মেয়েও ভ্যালেন্টাইনকে দেখতে গিয়ে দুজনের মধ্যে প্রেম সৃষ্টি হয়। কারারুদ্ধ ভ্যালেন্টাইনের প্রেমের গল্প শুনে ক্ষিপ্ত সম্রাট তাকে পুড়িয়ে মেরে ফেলে। সেই থেকে শুরু হয় ভালবাসা দিবস।

ভালোবাসা- অদৃশ্য এক অনুভূতি - যার নেই নির্দিষ্ট সংজ্ঞা বা নিয়ম-নীতি। ভালবাসার কোন বিশেষ দিন হতে পারে না, তবুও বিশ্বজুড়ে ১৪ই ফেব্রুয়ারি উদযাপিত হয় ভালবাসা দিবস ।

ডেস্ক
কামরুল ইসলাম
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ১৪ই ফেব্রুয়ারি, ২০২১


সর্বশেষ

আরও পড়ুন