• শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০
  • দুপুর ৪:২৭

ভিয়েতনামে দালালদের চক্র: বাংলাদেশিদের আটকে রেখে নির্যাতন

ভিয়েতনামে দালালদের চক্র: বাংলাদেশিদের আটকে রেখে নির্যাতন
কাজ দেয়ার নামে পর্যটক ভিসায় ভিয়েতনামে নেয়া হয় বাংলাদেশি কর্মীদের। পরে আটকে রেখে চলে নির্যাতন। লাখ লাখ টাকায় ভিয়েতনাম নেয়া সেসব বাংলাদেশি কর্মীদের দেয়া হয় বিএমইটির ছাড়পত্রও।

ভিয়েতনামে গড়ে ওঠেছে বাংলাদেশি দালালদের একটি প্রতারক চক্র। ভুয়া কোম্পানীর নামে ট্যুরিস্ট ভিসায় বাংলাদেশিদের সেখানে নেন তারা। পরে কাজ তো নেই, উল্টো মারধর করেন, আরো টাকা না দিলে দেয়া হয় হত্যার হুমকি।

দুতাবাসের সহায়তায় গেলো ৩ জুন ভিয়েতনাম থেকে দেশে ফেরেন তাদের মধ্যে ১১ জন বাংলাদেশি কর্মী। তারা সবাই ট্যুরিস্ট ভিসায় ১ মাস মেয়াদে জানুযারিতে ভিয়েতনাম পাড়ি দেন। প্রত্যেকেই গেছেন ৪-৫ লাখ টাকায়। সেখানে গিয়ে দেখেন যে কোম্পানীর নামে তাদের নেয়া হয় তার কোন অস্তিত্বই নেই।

ভিয়েতনাম ফেরত এই বাংলাদেশিদের মতে সেখানে দালালদের কাছে জিম্মি রয়েছে আরো কয়েকশো বাংলাদেশি।

দালালরা হলেন - ১. মোস্তফা ২. সাইফুল ইসলাম ৩. নিখিল(বাংলাদেশ) ৪. আকিদুল ইসলাম ৫. আতিকুর রহমান আতিক ৬. আকরাম চৌধুরী ৭. সাইফুল ইসলাম(বাংলাদেশ) ৮. আজগর(বাংলাদেশ)।

এ্যাডভেন্ট এবং আল নোমান হিউম্যান রিসোর্স রিক্রুটিং এজেন্সির মাধ্যমে বিএমইটির ছাড় পত্র নিয়ে গেছেন তারা। কিন্তু ট্যুরিস্ট ভিসায় কিভাবে দেয়া হলো বিএমইটির ছাড় পত্র? সেই প্রশ্ন রয়েই যায়। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী বলছেন ঘটনা অনুসন্ধান করা হবে।

ভিয়েতনামে নির্যাতনের শিকার বাংলাদেশিদের ফেরত আনতে এবং ভুয়া ভিসায় প্রতারণার দায়ে দালালদের শাস্তি ও ক্ষতিপুরণ দেয়ার দাবি জানিয়েছেন নি:স্ব হয়ে ফেরা এসব বাংলাদেশি।

ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ৭ই জুলাই, ২০২০
আপডেটঃ শুক্রবার, ১৪ই আগস্ট, ২০২০ রাত ০২:৫৩


সর্বশেষ

আরও পড়ুন