• শনিবার, ১৫ মে ২০২১
  • রাত ১১:২৬

'মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর সুযোগ নেই'

'মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর সুযোগ নেই'
দেশের করোনা পরিস্থিতি ক্রমশ অবনতি হচ্ছে। প্রতিদিনই রেকর্ড সংখ্যক রোগী শনাক্ত এবং মৃত্যু হচ্ছে। এমন পরিস্থিতে দোসরা এপ্রিল মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষা স্থগিতের আবেদন পরীক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের। তবে বিএমএ সভাপতি জানিয়েছেন, পরীক্ষা পেছানোর সুযোগ নেই ।

৩৭টি সরকারি মেডিক্যাল কলেজে এমবিবিএস কোর্সের প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় এবছর রেকর্ডসংখ্যক পরীক্ষার্থী- ১ লাখ ২২ হাজার ৮৭৪ জন। দোসরা এপ্রিল শুক্রবার বসবে ভর্তি পরীক্ষায়। এদিকে, টানা তিনদিন ধরে শনাক্তের সংখ্যা পাঁচ হাজারের উপরে। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় গেল ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১৯ দশমিক নয় শূন্য শতাংশ। 

এমন পরিস্থিতিতে ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। কেউ কেউ ভর্তি পরীক্ষার পক্ষে মত দিলেও, অধিকাংশ শিক্ষার্থীই উচ্চ সংক্রমণ ঝুকির মধ্যে পরীক্ষায় বসতে নারাজ। তারা বলেন, এই সময়ে পরীক্ষা গ্রহণের ফলে যদি কারো মাঝে সংক্রমণ দেখা দেয় তবে তার দায় কে নেবে। একইসঙ্গে যারা বর্তমানে সংক্রমিত আছেন ও যাদের শ্বাসকষ্ট আছে তারা কি আদৌ স্বাস্থ্যবিধি মেনে আইসোলেশন কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে পারবেন?

যেসব পরীক্ষার্থী বর্তমানে পজিটিভ এবং যাদের শ্বাসকষ্ট আছে তারা কিভাবে পরীক্ষায় অংশ নেবে ? স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে ভর্তি পরীক্ষা নেয়া কতোটা সম্ভব, সংশয় এবং উদ্বেগ অভিভাবকদের। অভিভাবকরা বলেন,  আমরা প্রতিদিন দেখছি দেশে সংক্রমণ বাড়ছে। একইসঙ্গে ঢাকাতে আইসিইউর জন্য হাহাকার চলছে। এমন অবস্থায় আসলে যদি কেউ আক্রান্ত হয় তবে তার চিকিৎসার দায় ভার কে নেবে?

এদিকে, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন জানান, পরীক্ষা পেছানোর কোন সুযোগ নেই।

করোনায় পরিস্থিতির অবনতির মধ্যে সশরীরে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ নিয়ে অস্তস্তি কাটছে না শিক্ষার্থী, অভিভাবকদের।

এদিকে, বুধবার (৩১ মার্চ) পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্রে প্রবেশ নিয়ে জরুরি নির্দেশনা দিয়েছে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর। নির্দেশনায় বলা হয়েছে, সকাল ৮টার মধ্যে পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে। সকাল সাড়ে ৯টায় কেন্দ্রের প্রধান ফটক বন্ধ হয়ে যাবে।

নির্দেশনায় আরো বলা হয়, আগামী ২ এপ্রিল যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। শিক্ষার্থীদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে সকাল ৮টার মধ্যে তাদের পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত হতে হবে। ৯টা ৩০ মিনিটে পরীক্ষা কেন্দ্রের প্রধান ফটক বন্ধ হয়ে যাবে। সাড়ে ৯টার পর কোনো শিক্ষার্থীকে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।

আগামী ২ এপ্রিল দেশের ৩৭টি সরকারি মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস কোর্সের প্রথম বর্ষের (২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ) ভর্তি পরীক্ষায় রেকর্ডসংখ্যক মোট ১ লাখ ২২ হাজার ৮৭৪ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করছেন। ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে এই সংখ্যা ছিল ৭২ হাজারেরও বেশি। এই শিক্ষাবর্ষে সারাদেশের ২৭টি ভেন্যুতে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়। কিন্তু এ বছর পরীক্ষার্থীর সংখ্যা বেশি হওয়ায় ও কোভিড-১৯ সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে সবার স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে কেন্দ্র সংখ্যা ১৯টি এবং ভেন্যু সংখ্যা ৫৫টি করা হয়েছে।

ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ৩১শে মার্চ, ২০২১


সর্বশেষ

আরও পড়ুন