• বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯
  • সকাল ৮:৪১

৩০ বছর পর সগীরা হত্যা রহস্য উন্মোচন

৩০ বছর পর সগীরা হত্যা রহস্য উন্মোচন
১৯৮৯ সালে রাজধানীর সিদ্ধেরশ্বরীতে গৃহবধূ সগীরা মোর্শেদ হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে, পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন-পিবিআই এর সংবাদ সম্মেলনে হত্যার পরিকল্পনা ও কারণ জানানো হয়েছে।  

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গৃহবধূ সগীরা হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী সগীরা মোর্শেদ এর স্বামীর ভাই ডা. হাসান আলী চোধুরী ও তার স্ত্রী সায়েদাতুল মাহমুদা। দুই বাসার বুয়াদের ঝগড়াকে কেন্দ্র করে এই হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছিলো বলে জানায় পিবিআই।  

পারিবারিক দ্বন্দ্বকে কেন্দ্র করে ২৫ হাজার টাকায় কিলার ভাড়া করে হত্যাকান্ডটি চালানো হয়। তিন দশক আগে রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুলের সামনে ছিনতাইয়ের সময় সগিরা মোর্শেদ সালাম হত্যাকাণ্ডে নিজেদের দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন নিহতের ভাসুর ডা. হাসান ও তার স্ত্রী শাহীন চৌধুরী।  

মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, ১৯৮৯ সালের ২৫ জুলাই সগিরা মোর্শেদ সালাম ভিকারুননিসা নূন স্কুল থেকে মেয়েকে আনতে যাচ্ছিলেন। বিকাল ৫টার দিকে সিদ্ধেশ্বরী রোডে পৌঁছামাত্র মটরবাইকে আসা ছিনতাইকারীরা তার হাতের সোনার চুড়ি ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। তিনি দৌড় দিলে তাকে গুলি করা হয়। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথেই সগিরা মোর্শেদ সালাম মারা যান। ওই দিনই রমনা থানায় অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে মামলা করেন সগিরা মোর্শেদ সালামের স্বামী সালাম চৌধুরী।  

ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ১৪ই নভেম্বর, ২০১৯
আপডেটঃ মঙ্গলবার, ১০ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ভোর ০৫:১৮


সর্বশেষ

আরও পড়ুন