• সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০
  • দুপুর ৩:৫৮

‘বিনা খরচে আইনি সেবা গরিব বিচার প্রার্থীদের অধিকার, অনুগ্রহ নয়’

‘বিনা খরচে আইনি সেবা গরিব বিচার প্রার্থীদের অধিকার, অনুগ্রহ নয়’
নওগাঁ জেলা ও দায়রা জজ ও জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির চেয়ারম্যান এ কে এম শহিদুল ইসলাম বলেছেন, লিগ্যাল এইড সংস্থার মাধ্যমে আইনি সেবা প্রাপ্তির জায়গাটি সমাজের সুবিধাবঞ্চিত গরিব বিচারপ্রার্থী মানুষের মধ্যে সাড়া জাগিয়েছে।

তিনি বলেন, "এই সংস্থার মাধ্যমে অসচ্ছল বিচার প্রার্থী মানুষ বিনা খরচে আইনি সেবা পাচ্ছেন, এটা তাদের অধিকার। এটা কোনো অনুগ্রহ নয়। বাংলাদেশের সরকার তাদের সেই অধিকার দিয়েছে।" 

শুক্রবার নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার চন্দনগর ইউনিয়নের বামইন স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে এক উঠান বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন। এই উঠান বৈঠকের আয়োজন করে চন্দননগর ইউনিয়ন পরিষদ ও ইউনিয়ন লিগ্যাল এইড কমিটি।  

জেলা ও দায়রা জজ বলেন, "মামলার ভারে বর্তমানে বিচারকদের ঘাড় নুয়ে পড়েছে। একজন বিচারকের যে পরিমান মামলা নিষ্পত্তি করার ক্ষমতা রয়েছে, তার চেয়ে হাজার গুণ মামলা তাঁর টেবিলে পড়ে রয়েছে। এ অবস্থায় আপোস-মিমাংসার মাধ্যমে বিরোধ নিষ্পত্তিতে গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার।"

তিনি আরো বলেন, "অসচ্ছল ও অসহায় মানুষদের বিনামূল্যে আইনি সেবাদান কার্যক্রম খুবই ফলপ্রসু। এই কার্যক্রম সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করতে সমাজের সুশিক্ষিত ও অগ্রসর মানুষদের এগিয়ে আসতে হবে।" 

চন্দনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন লিগ্যাল এইড কমিটির সভাপতি মো. বদিউজ্জামানের সভাপতিত্বে উঠান বৈঠকে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, নিয়ামতপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়া মারীয়া পেরেরা, নওগাঁ জজ কোর্টের সরকারি প্রকৌসুলি আব্দুল খালেক, নিয়ামতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে লিগ্যান এইড সংস্থার বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য চিত্র তুলে বক্তব্য রাখেন সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও নওগাঁ জেলা লিগ্যাল এইড কর্মকর্তা তাজুল ইসলাম।

ডেস্ক
ডিবিসি নিউজ
প্রকাশিতঃ ১৪ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০
আপডেটঃ সোমবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ১২:০৫


সর্বশেষ

আরও পড়ুন